default-image

এবারের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে বেশ কয়েকটি ম্যাচে বড় ব্যবধানের জয় পেয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি। গোল ব্যবধানে অন্য শীর্ষ দলগুলোর চেয়েও তারা বেশ এগিয়ে আছে। কিন্তু গতকাল নিজেদের মাঠে চেলসির বিপক্ষে একটি গোলও করতে পারেনি ম্যানচেস্টার সিটি। উল্টো বরং একটি গোল হজম করে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে ম্যানুয়েল পেলিগ্রিনির শিষ্যদের। ৩৭ মিনিটে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছেন চেলসির ডিফেন্ডার ব্রানিস্লাভ ইভানোভিচ।
ম্যানচেস্টার সিটি নিজেদের মাঠে শেষবারের মতো গোলবঞ্চিত হয়েছিল ২০১০ সালের নভেম্বরে। বার্মিংহাম সিটির বিপক্ষে সেই ম্যাচটা ড্র হয়েছিল গোলশূন্যভাবে। এরপর টানা ৬১ ম্যাচে প্রতিপক্ষের জালে অন্তত একবার হলেও বল জড়িয়েছিলেন ম্যানসিটির খেলোয়াড়েরা। কিন্তু গতকাল তাঁদের এখানেই থামিয়ে দিয়েছে চেলসি। প্রিমিয়ার লিগের এবারের মৌসুমে নিজেদের মাঠে প্রথমবারের মতো হারের স্বাদও পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।
দ্বিতীয় দফায় চেলসির কোচের দায়িত্ব গ্রহণ করে অনেকখানিই যেন পাল্টে গেছেন হোসে মরিনহো। পর্তুগিজ কোচের সেই উদ্ধত চেহারাটা দেখাই যাচ্ছে না। শিরোপা জয়ের গুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ে ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়েও যেন নিস্পৃহ এ সময়ের অন্যতম সেরা এই কোচ। পয়েন্ট তালিকায় ভালো অবস্থানে থাকলেও চেলসিকে এখনো ফেবারিট হিসেবে বিবেচনা করছেন না মরিনহো। গতকাল গুরুত্বপূর্ণ এ জয়টির পর তিনি বলেছেন, ‘আমরাই ফেবারিট, এটা বলাটা আমাদের কাজ না। আমাদের আগে নিজেদের পরিপূর্ণ হয়ে উঠতে হবে। পরবর্তী মৌসুমের শুরুতে, আমি আর আমার খেলোয়াড়েরা খোলাখুলিভাবে বলতে পারব যে, এখন আমরা পরিপক্ব। শুরুর দিন থেকেই আমরা শিরোপার প্রধান দাবিদার হয়ে উঠব। এই মৌসুমটা আমাদের গড়ে ওঠার সময়।’

তবে মরিনহো স্বীকার না করলে কী হবে, শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে চেলসি টিকে আছে বেশ ভালোভাবেই। ২৪ ম্যাচ শেষে ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে আর্সেনাল। সমানসংখ্যক ম্যাচ খেলে চেলসি ও ম্যানচেস্টার সিটির সংগ্রহ ৫৩ পয়েন্ট।— রয়টার্স

বিজ্ঞাপন
খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন