default-image

করোনাভাইরাস ক্রিকেটারদেরও ঘরে ঢুকিয়ে দিয়েছে। ফিটনেস ঠিক রাখতে গত দুই-আড়াই মাস কেউ ঘরেই দৌড়ঝাঁপ করেছেন, কেউ ছাদে গিয়ে নাড়াচাড়া করেছেন ব্যাট-বল। কিন্তু এভাবে কতদিন! অবশেষে বিসিবি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ক্রিকেটারদের জন্য দেশের চারটি জায়গায় খুলে দেওয়া হবে অনুশীলন সুবিধা।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরীই কাল দিলেন এ খবর, 'ঢাকা, সিলেট, রাজশাহী ও কক্সবাজারে আমরা অনুশীলন শুরু করার ব্যবস্থা করছি। যদি কেউ চায়, আর পাঁচ-সাতদিন পর থেকে ব্যক্তিগত উদ্যোগে এসব জায়গায় অনুশীলন করতে পারবে।' এসব জায়গায় বিসিবির আওতাধীন মাঠ, জিম ও অন্যান্য অনুশীলন সুবিধা ব্যবহার করতে পারবেন জাতীয় দল ও জাতীয় দলের আশপাশের ক্রিকেটাররা। তবে সে জন্য মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি ও বিসিবির বেঁধে দেওয়া নিয়মকানুন।

গত কয়েক দিনে ঢাকা ও ঢাকার বাইরের অনেক ক্রিকেটারই বিসিবির কাছে ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলন করার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন। সেটিরই ধারাবাহিকতায় এ ব্যবস্থা। 'সবার তো বাসায় জিম–সুবিধা নেই, অনুশীলন করারও উপায় নেই। সে জন্য কয়েকজন ক্রিকেটার আমাদের বলেছে, তারা মাঠে গিয়ে অনুশীলন করতে চায়। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে হুট করে এ ব্যবস্থা করা সম্ভব নয়। আমরা সব রকম স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ক্রিকেটারদের সীমিত পরিসরে অনুশীলন–সুবিধা দিতে যাচ্ছি,' বলেছেন নিজাম উদ্দিন চৌধুরী।

'সীমিত পরিসরে অনুশীলন'–এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী বলেছেন, 'প্রথমে ক্রিকেটাররা একজন একজন করে আসবে অনুশীলন করতে। ঘণ্টাখানেক অনুশীলন করে চলে যাবে। এরপর আরেকজন...।' করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হতে থাকলে অনুশীলনেও খেলোয়াড়ের সংখ্যা বাড়তে থাকবে।

প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের ছয়টি ম্যাচ হওয়ার পর গত ১৬ মার্চ করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ হয়ে যায় দেশের সব ক্রিকেটীয় কার্যক্রম। ক্রিকেটাররা সেই থেকে ঘরবন্দী, বিসিবির কর্মকর্তারাও কাজ করেছেন ঘরে বসেই।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0