বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কুলদীপের সাফল্যে অশ্বিনের ভালো লাগলেও সে সময়টা নিয়ে তিনি বলেন, ‘রবি ভাইকে আমরা অনেক সম্মান করি। আমরা সবাই করি। তবে সে মুহূর্তে নিজেকে চূর্ণ-বিচূর্ণ মনে হয়েছিল। সব ভেঙে চুরে গেছে, এমন মনে হয়েছিল।’ অশ্বিনের ভাষায়, ‘২০১৮ থেকে ২০২০—এর মধ্যে বিভিন্ন সময় আমি ক্রিকেট ছেড়ে দেওয়ার কথা ভেবেছি।’

তবে সে সময় নিয়ে অশ্বিন স্পষ্ট করেই বলেছেন নিজের মনের কথা, ‘কুলদীপের জন্য ভালো লাগছিল। অস্ট্রেলিয়ায় (স্পিনারের জন্য) পাঁচ উইকেট অনেক বড় সাফল্য। আর অস্ট্রেলিয়ায় জেতাটা ছিল সত্যিই দারুণ ব্যাপার। কিন্তু দলীয় সাফল্য কিংবা সতীর্থের সাফল্য উদ্‌যাপন করতে হলে তো আগে মনে হতে হবে আমি এই দলেরই অংশ। যদি মনে হয় আমাকে বাসের নিচের ছুড়ে ফেলা হয়েছে, তাহলে কীভাবে দল কিংবা দলীয় সাফল্য উপভোগ করব?’ অস্ট্রেলিয়ার সেবার সিরিজ জয়ের পর অশ্বিন অবশ্য দলের সঙ্গেই উদ্‌যাপন করেছিলেন।

শাস্ত্রীর সেই কথায় অশ্বিনের হৃদয় ভাঙার কারণও আছে। সে সিরিজের প্রথম টেস্টে ভারতের জয়ে দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন অশ্বিন। অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংসে প্রথম ৪ উইকেটের ৩টি নেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৫০ ওভারের বেশি বল করে আরও ৩ উইকেট পেলেও চোটে পড়েন তিনি।

সে সিরিজে বাকি তিন ম্যাচ আর খেলা হয়নি অশ্বিনের। সিরিজ শেষে দেখা গেল একটি করে ম্যাচ খেলা অশ্বিন ও কুলদীপের মধ্যে প্রথমজনই বেশি উইকেট পেয়েছিলেন। কুলদীপ নিজের ৫ উইকেটকে আর বাড়াতে পারেননি।

সে পারফরম্যান্স নিয়ে অশ্বিনের উক্তি, ‘প্রচণ্ড ব্যথা নিয়েও দলের জন্য দারুণ কিছু করতে পেরেছি বলে মনে হয়েছিল। কিন্তু আমার কানে এসেছে “নাথান লায়ন ৬টা পেয়েছে, অশ্বিন ৩টি।”’

৮১ টেস্টে ৪২৭ উইকেট নেওয়া অশ্বিন ২০১৮ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে একাধিকবার ক্রিকেট ছেড়ে দেওয়ার ভাবনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘ভেবেছিলাম, যতটা চেষ্টা করছি ততটা ফল মিলছে না। যতই বেশি করে চেষ্টা করেছি ততই বেশি করে কথাটা অনুভব করেছি। তখন চোটও ছিল। ছয়টি বল করার পর শ্বাস নিতে হাঁসফাঁস করতাম।’

শুধু চোট নয়, আশপাশের মানুষের সেভাবে পাশে না দাঁড়ানোর বিষয় নিয়েও বলেছেন অশ্বিন, ‘মনে হতো লোকে তো (এমন পরিস্থিতিতে) অনেকেরই পাশে দাঁড়ায়, তাহলে আমার কী সমস্যা? আমি তো কিছু কম করিনি। দলকে অনেক ম্যাচ জিতিয়েছি, কিন্তু সেভাবে কেউ পাশে দাঁড়াচ্ছে না—এমনটাই মনে হয়েছে। ভেবেছিলাম, হয়তো অন্য কিছুতে মনোযোগ দেওয়া উচিত, যেখানে ভালো করতে পারব।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন