অথচ অশ্বিনের নামের পাশে আছে ৪৪২টি টেস্ট উইকেট। সর্বকালের সেরা ভারতীয় স্পিনারের আলোচনায় অশ্বিনের নাম আসবে। কিন্তু দেশের বাইরে গেলে তাঁর জায়গা হয় ডাগআউটে।

default-image

ভারতীয় ক্রিকেটের আরেক বড় নাম বিরাট কোহলি। দীর্ঘদিন ফর্মে না থাকলেও টি-টোয়েন্টিতে তিনি ঠিকই জায়গা ধরে রেখেছেন। এই বৈষম্যটা ভালো লাগছে না আরেক ভারতীয় কিংবদন্তি কপিল দেবের। অশ্বিন যেমন কন্ডিশনের কারণে টেস্ট দলে জায়গা পান না, তেমনি ফর্মের কারণে কোহলিকে টি-টোয়েন্টি দলে দেখতে চান না ৮৩'র বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক।

এবারের আইপিএল খারাপ গেলেও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে রানেই ছিলেন কোহলি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ টি-টোয়েন্টিতে ৪১ বলে ৫২ রানের ইনিংস খেলেছেন তিনি। যদিও ভারত তাদের সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে শক্তিশালী ইংল্যান্ডকে হারিয়েছে কোহলিকে ছাড়াই। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে ভারত ৮ উইকেটে ১৯৮ রান করেছে ৫০ রানে জিতেছে। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি আজ। এজবাস্টনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের পর বিশ্রামে থাকা কোহলির আজকের ম্যাচ দিয়ে দলে ফেরার কথা।

default-image

যদিও কপিল দেব তারুণ্যে ঠাসা ভারতীয় টি-টোয়েন্টি দলই দ্বিতীয় ম্যাচে দেখতে চান। তাঁর কথা, ‘বছরের পর বছর কোহলি যে মানের পারফরম্যান্স দিয়ে এসেছে, এখন সেটা পারছে না। সে জনপ্রিয় হয়েছে পারফরম্যান্সের কারণে। এখন আগের সেই পারফরম্যান্স নেই। কিন্তু যে তরুণরা পারফর্ম করছে, তাদের তো বাইরে রাখতে পারেন না। আমি দলের মধ্যে প্রতিযোগিতা দেখতে চাই। আমি চাইব তরুণরা যেন কোহলিকে পারফরম্যান্স দিয়ে ছাড়িয়ে যায়।’

ক্রিকেটারদের নাম, খ্যাতি ভুলে নির্বাচকদের দল সাজানোর পরামর্শ দিয়েছেন কপিল দেব। এ ক্ষেত্রে কে কেমন খেলছে, সেটাই হওয়া উচিত দল নির্বাচনের মানদণ্ড। কপিল দেব বলছিলেন, ‘আপনি বিষয়টিকে বাদ দেওয়া হিসেবে দেখতে পারেন। না হলে বিশ্রাম। আপনাকে খেলাতে হবে যে ফর্মে আছে তাঁকে। আপনি ক্রিকেটারের পরিচিতি দেখে দল সাজাতে পারেন না। আপনি দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার হতে পারেন, কিন্তু যদি পাঁচ ম্যাচে ভালো না করেন, তাহলে তো বারবার সুযোগ দেওয়া যাবে না।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন