বিজ্ঞাপন

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরুর পর ইংল্যান্ড এ সময়ে ২১ টেস্ট খেলেছে। অন্য যেকোনো দলের চেয়ে বেশি টেস্ট খেলেছে তারা। ভারত খেলেছে ১৭ টেস্ট, নিউজিল্যান্ড ১১ টেস্ট এবং টেবিলের তলানিতে থাকা বাংলাদেশ খেলেছে ৭ টেস্ট।

default-image

ন্যাটওয়েস্ট ক্রিকেট ফোর্সের এক ইভেন্টে প্রেস অ্যাসোসিয়েশনকে নিজের মনের কথা জানান ব্রড, ‘বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ধারণাটা খুব ভালো। তবে এটা পুরোপুরি ঠিকভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে, তা মনে করি না। প্রথমবার তো, সে জন্য হতে পারে। পাঁচ ম্যাচের অ্যাশেজ সিরিজ কীভাবে ভারত-বাংলাদেশ দুই টেস্ট সিরিজের সমান হতে পারে, তা বুঝতে পারি না। হ্যাঁ, এই টুর্নামেন্টের ভালো দিক তো আছেই। তবে আরও কিছু কাজ করা দরকার এ নিয়ে।’

ইংল্যান্ডের ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হওয়া নিয়ে ব্রড বলেন, ‘আমাদের সুযোগ ছিল। কিন্তু বর্তমান কাঠামোয় আমরা এত বেশি ক্রিকেট খেলি যে ফাইনালে ওঠা খুব কঠিন হয়ে পড়ে।’

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পয়েন্ট বণ্টন নিয়ে ব্রড-ই প্রথম প্রশ্ন তুললেন না। এর আগে সাবেক-বর্তমান ক্রিকেটারেরাও বলেছেন। ইংল্যান্ড এবার প্রথম চ্যাম্পিয়নশিপে ১১ ম্যাচ জয়ের পাশাপাশি ৭ ম্যাচ হেরেছে এবং ৩ ম্যাচে ড্র করেছে।

ভারত জিতেছে ১২ টেস্ট, ৪ হার ও ১ ড্র। নিউজিল্যান্ড ৭ টেস্ট জিতে ও ৪ হারে উঠে এসেছে চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে। অস্ট্রেলিয়া জিতেছে ৮ টেস্ট, হার ৪টি। কিন্তু ইংল্যান্ড পয়েন্ট তালিকার চারে থেকে চ্যাম্পিয়নশিপের মৌসুম শেষ করেছে।

টেস্টে ৫১৭ উইকেট নেওয়া ব্রড নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজে খেলবেন বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম। ২ জুন থেকে এই সিরিজে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড। নতুন বলে তাঁর সঙ্গী চিরসবুজ জেমস অ্যান্ডারসন। টেস্টে পেসারদের মধ্যে অ্যান্ডারসনই সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি।

ওয়ানডেতেও ইংল্যান্ডের হয়ে তিনি সর্বোচ্চ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছেন। একমাত্র পেসার হিসেবে ৬০০-র বেশি টেস্ট উইকেট নেওয়ার নজিরও গড়েছেন অ্যান্ডারসন। টেস্টে সব মিলিয়ে উইকেট শিকারে তিনি চতুর্থ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন