আইপিএলকে না বলার সিদ্ধান্তে খুশি স্টার্ক

বিজ্ঞাপন
default-image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে এই মৌসুমের আইপিএলে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মিচেল স্টার্ক। গত বছর ডিসেম্বরে আইপিএলের নিলামের প্লেয়ার্স ড্রাফটে তাই ছিল না এই অস্ট্রেলিয়ান পেসারের নাম। সবকিছু ঠিক থাকলে এ বছর মার্চে শুরু হতে পারত আইপিএল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে আইপিএল পিছিয়েছে। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসছে ১৩তম আইপিএল। ওদিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও পিছিয়েছে এক বছর। তবু এবারের আইপিএল না খেলার সিদ্ধান্তে খুশি স্টার্ক।

সর্বশেষ ২০১৫ সালে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে খেলেছিলেন এই গতি তারকা। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বার লিগ থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখলেন তিনি। ২০১৮ সালের আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্স স্টার্ককে কিনেছিল। তবে চোটের জন্য সে বছর একটা ম্যাচও মাঠে নামতে পারেননি।সাইডবেঞ্চে বসেই সময় কাটিয়েছিলেন। এবার অবশ্য নিজের ফিটনেসকেই বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন।

আইপিএলের ব্যাপারে কোনো আফসোস নেই। বরং খোলাখুলিই মনের কথাটা জানিয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার, ‘জানি, যে সিদ্ধান্ত আমি নিয়েছি সেটা খুবই চমৎকার এবং এখন আইপিএল আরেকটা নতুন সময়ে শুরু হচ্ছে। কিন্তু না, আমি এটা বদলাতে পারব না। সেপ্টেম্বরে যখন আইপিএল শুরু হবে আমি তখন গ্রীষ্মের ছুটি কাটাতে প্রস্তুত হব।’ নিজের সিদ্ধান্ত নিয়ে এতটুকু দুঃখ নেই স্টার্কের, ‘আগামী বছরের আইপিএলও খুব কাছেই এসে পড়েছে এবং আমি যদি খেলতে চাই অথবা লোকে আমাকে আইপিএলে চায় তাহলে অবশ্যই ব্যাপারটা বিবেচনা করব। কিন্তু এই বছরের জন্য যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি সেটা আমার জন্য খুবই স্বস্তিদায়ক।’

এবারের আইপিএল হবে ৫৩ দিনের। মরুর বুকে যে আইপিএল হবে সেটার সবুজ সংকেতও ভারত সরকারের কাছ থেকে এরই মধ্যে পেয়ে গেছে বিসিসিআই। ১০ নভেম্বর হবে ফাইনাল। ম্যাচের ভেন্যু নির্ধারণ করা হয়েছে দুবাই, আবুধাবি ও শারজাহতে। দিনের ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায়। রাতের ম্যাচ শুরু হবে রাত ৮টায়। মেয়েদের আইপিএলও সংযুক্ত আরব আমিরাতে হবে বলে জানিয়েছে বিসিসিআই।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন