default-image

এবার আইপিএলের নিলামে নাম ছিল না ডেল স্টেইনের। ফলে ইচ্ছা থাকলেও দক্ষিণ আফ্রিকান পেসারকে নিতে পারেনি কেউ। অবশ্য গত মৌসুমে তাঁর পারফরম্যান্স দেখে আগ্রহী ফ্র্যাঞ্চাইজির সংখ্যাও খুব বেশি হওয়ার কথা নয়। করোনা মহামারির মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতে হওয়া আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে খুবই বাজে পারফরম্যান্স ছিল তাঁর।

গত আইপিএলে ভালো করেননি বলে অথবা টানা দুই মাস আবার জৈব সুরক্ষাবলয়ে থাকার দুশ্চিন্তাতেই হোক, আইপিএএল নিলামে নিজের নাম তোলেননি স্টেইন।

আইপিএল নিলামের পরই আবার পাকিস্তান সুপার লিগে খেলতে চলে গেছেন। আর সেখানে খেলতে নেমে বলছেন, আইপিএল খেলার ইচ্ছা হয়নি। ভারতের আইপিএলের চেয়ে পাকিস্তানের সুপার লিগে খেলাই নাকি বেশি ভালো মনে হয়েছে তাঁর।

বয়স ৩৮ হয়ে গেছে স্টেইনের। আগের মতো বলে ধার নেই। গতিতে চমক আর দেখাতেও পারেন না আগের মতো। গত আইপিএলে মাত্র তিন ম্যাচ খেলেছেন। আর বেশি খেলার সুযোগ মেলেনি। কীভাবে মিলবে?

৩ ম্যাচে বল করে মাত্র ১ উইকেট পেয়েছিলেন। ওভারপ্রতি ১১.৪০ রান দিয়েছেন। ফলে একসময়ের বিশ্বসেরা ফাস্ট বোলারকে বেঞ্চেই বসিয়ে রাখা হয়েছিল। এর আগের আইপিএলেও খুব ভালো করেননি। ২ ম্যাচে পেয়েছিলেন ৪ উইকেট।

বিজ্ঞাপন

ডেল স্টেইন এর আগে দুটি আইপিএলে খেলেননি। ২০১৬ আইপিএলেও খেলেছেন মাত্র ১ ম্যাচ। ২০১৩ আইপিএলের পর থেকেই প্রাধান্য বিস্তার কখনোই করতে দেখা যায়নি তাঁকে।

এ মৌসুমে তাই আইপিএল থেকে তাঁর নাম কাটিয়ে নেওয়া খুব একটা বিস্ময়কর ছিল না। যদিও এবার আইপিএলের নিলামে পেসারদের নিয়ে রীতিমতো কাড়াকাড়ি হয়েছে।

এদিকে আইপিএল থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেও পিএসএল খেলতে ঠিকই পাকিস্তান গিয়েছেন স্টেইন। সেখানেই বলেছেন, আইপিএল এত বেশি অর্থের ঝনঝনানি হয় বলেই নাকি যাননি সেখানে।

ক্রিকেট পাকিস্তানের সঙ্গে কথোপকথনে স্টেইন বলেছেন, ‘আমার একটু ছুটি দরকার ছিল। আমার কাছে অন্য লিগগুলোতে খেলাটাই বেশি আকর্ষণীয় মনে হয়েছে।

আমার মনে হয়, আইপিএলে এত বড় স্কোয়াড থাকে, এত বড় বড় সব নাম থাকে এবং কে কত দামে বিক্রি হলো, সেটায় এত বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। মাঝেমধ্যে এসবের মধ্যে ক্রিকেটের কথাই ভুলে যায়।’

স্টেইনের দাবি, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্টে ক্রিকেট নিয়ে আগ্রহ কম থাকে সবার। বরং মাঠের বাইরের চাকচিক্যে সবার নজর থাকে।

আর এ কারণেই পিএসএল বা অন্য লিগে আগ্রহ বাড়ছে তাঁর, ‘আপনি যখন পিএসএল বা শ্রীলঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে খেলেন, সেখানে ক্রিকেটেই গুরুত্ব থাকে। আমি এখানে মাত্র কয়েক দিন হলো এসেছি। এখন পর্যন্ত অনেকেই আমার রুমে এসেছে। তারা শুধু জানতে চেয়েছে, আমি কোথায় খেলেছি এত দিন এবং কীভাবে খেলেছি। অথচ আইপিএলে যখন খেলতে যাই, এসব মানুষ ভুলেই যায়। সেখানে মূল আলোচনাই হলো আইপিএলের জন্য কত অর্থ পাচ্ছেন আপনি। আমি একদম কঠিন সত্য বলছি। আমি এ থেকে দূরে থাকতে চেয়েছি। আমি বরং খেলায় মন দিতে চেয়েছি এবং সেসব ক্রিকেট দল ও টুর্নামেন্টকে ভালো কিছু দেওয়ার চেষ্টা করছি, যারা এর যোগ্য বলে মনে করি আমি।’

আইপিএলকে নিজের ইতিবাচক মানসিকতার যোগ্য বলে মনে হচ্ছে না আর স্টেইনের। তবে পিএসএলেও এখন পর্যন্ত ইতিবাচক কোনো কারণে সংবাদ শিরোনাম হতে পারেননি। প্রথম ম্যাচে ৪৪ রান দিয়েছেন কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের হয়ে।

সে ম্যাচেই আবার তাঁর চুল নিয়ে রসিকতা করেছিলেন ধারাভাষ্যকার সাইমন ডোল। এ নিয়েও কড়া জবাব দিয়ে আলোচনায় এসেছেন স্টেইন। সাবেক নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটারকে নাকি মানুষই মনে করেন না তিনি!

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন