২০১৯ আইপিএল জয়ের পর মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।
২০১৯ আইপিএল জয়ের পর মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। ছবি : বিসিসিআই

শুরুটা এর চেয়ে ভালো হতে পারে না। কাল আবুধাবিতে গত আইপিএলের চ্যাম্পিয়ন দল মুম্বাই ইন্ডিয়ানস ও রানার্সআপ দল চেন্নাই সুপার কিংস খেলবে এবারের আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে। মুম্বাই চারবারের চ্যাম্পিয়ন, চেন্নাই তিনবারের। বিশ্বের সেরা টি-টোয়েন্টি লিগের সেরা দুই দলের লড়াই দিয়ে শুরু হবে এবারের আইপিএল।

টুর্নামেন্টের প্রথম সপ্তাহেই মাঠে নামবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ, কলকাতা নাইট রাইডার্স, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর মতো তারকায় ঠাসা টি-টোয়েন্টি দল। কিন্তু কে জিতবে ১৩তম আইপিএলের শিরোপা? প্রতিটি দলের সদস্য, শক্তি, দুর্বলতা সবার সামনেই আছে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু সাবেক ক্রিকেটার, কোচদের অনেকেই শিরোপা জয়ের জন্য ভোট দিচ্ছেন আইপিএলের সবচেয়ে সফল দল মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে। দুইবার আইপিএল জয়ী অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর, সাবেক ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকার ইয়ান বিশপ, সঞ্জয় মাঞ্জরেকার, আকাশ চোপড়া, অজিত আগারকার, দ্বীপ দাস গুপ্ত ও টম মুডির বেছে নেওয়া সেরা চার দলের মধ্যে আছে মুম্বাই।

শুধু চারবারের চ্যাম্পিয়ন দল সে জন্যই নয়, রোহিত শর্মার দল এবারের আইপিএলে সবচেয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দলগুলোর একটি। টপ অর্ডারে রোহিতের মতো সাদা বলের দুর্দান্ত ওপেনারের সঙ্গে ইনিংসের সূচনা করবেন দক্ষিণ আফ্রিকার আরেক বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক। সূর্যকুমার যাদব, ঈশান কিশানদের ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলিয়ে এসেছে মুম্বাই। এবারও তাই করার সম্ভাবনা বেশি।

বিজ্ঞাপন

মুম্বাইয়ের বড় শক্তি মিডল অর্ডার ব্যাটিং। কাইরন পোলার্ড, ক্রুনাল পান্ডিয়া, হার্দিক পান্ডিয়া—এই তিন ক্রিকেটারের পারফরম্যান্স প্রতি আসরেই মুম্বাইয়ের ভাগ্য নির্ধারণ করে দেয়। পোলার্ডের দল কদিন আগেই সিপিএল শিরোপা জিতেছে। ব্যাট হাতে সেই টুর্নামেন্টে পোলার্ডের ফর্ম ছিল মনে রাখার মতো। মাঝে কয়েক বছর নিয়মিত বোলিং করতেন না। এবার সিপিএলে বল করেও পেয়েছেন সাফল্য। আইপিএলেও হয়তো পোলার্ডকে হাত ঘুরাতে দেখা যাবে।

মুম্বাইয়ের বোলিংয়ে বড় ক্ষতি অভিজ্ঞ লাসিথ মালিঙ্গার না থাকা। বাবার অসুস্থতার জন্য এবার আইপিএল খেলবেন না এই লঙ্কান কিংবদন্তি। তবে যশপ্রীত বুমরা আছেন সেই শূন্যতা পূরণ করতে। আর আরেক বিশ্বমানের বোলার ট্রেন্ট বোল্ট। বোল্ট চোটে পড়লে খেলতে পারেন আরেক কিউই পেসার মিচেল ম্যাকলেনাহান। স্পিন আক্রমণ সামাল দেওয়ার জন্য তরুণ রাহুল চাহার তো আছেনই।

বিজ্ঞাপন

মুম্বাই ছাড়াও পাঁচ বিশেষজ্ঞের পছন্দ তরুণদের দল দিল্লি ক্যাপিটালস। গতবার এক ঝাঁক তরুণদের নিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছিল রিকি পন্টিংয়ের দলটি। এবার আরেক ধাপ এগোনোর প্রত্যাশা দলটির। মাঞ্জরেকার যেমন মুম্বাই, চেন্নাই, হায়দরাবাদের সঙ্গে পছন্দের তালিকায় রেখেছেন দিল্লিকেও। বিশপের পছন্দও অনেকটা মাঞ্জরেকারের মতোই। মুম্বাই, চেন্নাই, দিল্লির সঙ্গে এই ক্যারিবিয়ানের পছন্দ বেঙ্গালুরু।

গম্ভীরের পছন্দের তালিকায় আছে চমক। মুম্বাই, হায়দরাবাদ, দিল্লি অথবা রাজাস্থানের সঙ্গে তিনি রেখেছেন পাঞ্জাবকেও। দ্বীপদাস গুপ্তের পছন্দের চার দল মুম্বাই, বেঙ্গালুরু, চেন্নাই ও কলকাতা। এবার নাকি মুডির সবচেয়ে পছন্দের দল দিল্লি। মুম্বাই, পাঞ্জাব ও হায়দরাবাদ এই অস্ট্রেলিয়ানের পছন্দ। মুম্বাই, রাজস্থান, কলকাতা, চেন্নাইকে বেছে নিয়েছেন আগারকার। আকাশের পছন্দ দিল্লি, চেন্নাই, মুম্বাই ও বেঙ্গালুরু।

মন্তব্য পড়ুন 0