default-image

আইপিএল নিলামের পর থেকেই নতুন করে আলোচনাটা জমে উঠেছে। এমনিতেই করোনাকালে খেলা হচ্ছে নিয়মিত। দম ফেলার ফুরসত পাচ্ছেন না খেলোয়াড়েরা। আজ আন্তর্জাতিক সিরিজ, কাল এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট—এভাবেই চলছে তাঁদের দিন। আন্তর্জাতিক কোনো সিরিজের মধ্যে ফ্র্যাঞ্চাইজি কোনো টুর্নামেন্ট হচ্ছে, এমনও নজির দেখা যাচ্ছে। আর এই কারণেই খেলোয়াড়েরা আইপিএল খেলবেন, না জাতীয় দলের ম্যাচ—জমে উঠেছে তর্ক-বিতর্ক।

আইপিএল খেলার জন্য শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট না খেলার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বলা যায়, আলোচনাটা নতুন করে উঠেছে সাকিবের কারণেই। ওদিকে গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার কাগিসো রাবাদা জানিয়ে দিয়েছেন, আইপিএলের চেয়ে দেশের হয়ে খেলাই তাঁর কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এবার এই আলোচনায় যোগ দিয়েছেন ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো।

বিজ্ঞাপন

বেয়ারস্টো আবার রাবাদার সঙ্গে একমত হননি। বেয়ারস্টো আবার এর পেছনে দেখছেন বোর্ডের সঙ্গে খেলোয়াড়দের চুক্তির ব্যাপারটা। অনেকের সঙ্গে বোর্ড চুক্তি করে শুধু টেস্ট খেলার জন্য, আবার কারোর সঙ্গে বোর্ডের শুধু সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলারই চুক্তি থাকে। আবার অনেকে দুই ধরনের ক্রিকেট খেলার জন্যই চুক্তিবদ্ধ থাকেন।

default-image

বেয়ারস্টো এই বিষয়টাকেই তুলে ধরেছেন মূলত, ‘যারা আইপিএল খেলতে চায়, তাদের আপনি আটকাতে পারেন না। দেখুন, এটা ক্রিকেটেরই অংশ। আপনার এমন খেলোয়াড়ও থাকবে, যাদের টেস্ট খেলার চুক্তি আছে (লাল বলের চুক্তি), আবার কারও কারও ওয়ানডে খেলার চুক্তি আছে জাতীয় দলের সঙ্গে। আমার মনে হয় যাদের সঙ্গে বোর্ডের সাদা বলের চুক্তি আছে, তারা আইপিএল খেলতে চাইবে, আর আপনি তাদের আটকাতে পারবেন না।’

জনি বেয়ারস্টো নিজেও আইপিএল খেলেন। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ফ্র্যাঞ্চাইজির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ তিনি, জিতেছেন শিরোপাও। এবারও তাঁকে দেখা যাবে আইপিএলের ১৪তম মৌসুমে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন