default-image

আইসিসি হঠাৎ ব্যাট নিয়ে পড়ল কেন, সেটা কিছুতেই ভেবে পাচ্ছেন না এউইন মরগান। ইংলিশ অধিনায়কের মতে, বিশ্বকাপের পর ব্যাটের বিরুদ্ধে আইসিসির ‘যুদ্ধ’ ঘোষণার ব্যাপারটি ‘হাস্যকর কৌতুক’ ছাড়া আর কিছুই নয়।
আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসনের একটি মন্তব্যকেও ভালোভাবে নেননি মরগান। তিনি বলেছিলেন ক্রিকেটে ব্যাটসম্যান ও বোলারের সুবিধা পাওয়ার ভারসাম্যটা নষ্ট হয়ে তা ব্যাটসম্যানদের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। কিছু দিন আগে দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩১ বলে সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর সাবেক প্রোটিয়া ক্রিকেটার রিচার্ডসন তাঁর সেই মন্তব্যটি করেছিলেন।
মরগান মনে করেন, ‘ব্যাট নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে কিন্তু ক্রিকেটে যে দুই দিকে দুটি নতুন বল দিয়ে খেলা হচ্ছে, সেটা নিয়েও তো কথা বলা উচিত। একটি ক্রিকেট ম্যাচে কখনোই কোনো বল ২৫ ওভারের বেশি পুরোনো হয় না। সে কারণে সার্কেলের মধ্যে সব সময়ই একজন ফিল্ডার রেখে দিতে হয়।’
মরগানের মতে, এমন যখন পরিস্থিতি তখন কেবল ব্যাটের আকার নিয়ে ব্যতিব্যস্ত হওয়াটা হাস্যকর ব্যাপার ছাড়া আর কিছুই নয়।
বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ায় ত্রিদেশীয় প্রতিযোগিতার ফাইনালে খেলে নিজেদের আত্মবিশ্বাসটা অনেকটাই বাড়িয়ে নিয়েছে ইংলিশরা। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে বড় ব্যবধানে হারলেও পুরো প্রতিযোগিতায় দলের পারফরম্যান্স দারুণ আশাবাদ জোগাচ্ছে মরগানকে, ‘ফাইনালটা বাজে খেলেছি। তবে এই মুহূর্তে আমরা নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে প্রস্তুত হচ্ছি বিশ্বকাপের জন্য।’
বিশ্বকাপে নিজেদের সামর্থ্যের ওপর অগাধ ভরসা মরগানের। তিনি মনে করেন, দলের সামর্থ্যেই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে ভালো করতে অনুপ্রেরণা জোগাবে, ‘আমার দলের সামর্থ্য নিয়ে আমি আশাবাদী, একই সঙ্গে আত্মবিশ্বাসী।’ নিজেদের খেলাটা খেলতে পারলে বিশ্বকাপে অবশ্যই আমরা ভালো কিছু করতে পারব। সূত্র: এএফপি।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন