default-image

টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর বাংলাদেশের তৃতীয় অধিনায়ক ছিলেন খালেদ মাহমুদ। কিন্তু প্রথম দুই অধিনায়ক নাঈমুর রহমান আর খালেদ মাসুদের চাইতে তাঁর রেকর্ড ভালো ছিল—এ কথা বলার কোনো উপায় নেই। তবে এ দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে মাহমুদ থাকবেন দিন বদলের অনুঘটক হিসেবেই। ২০০০ সালের পর হারতে হারতে ক্লান্ত বাংলাদেশের টেস্ট মর্যাদা নিয়ে যখন প্রশ্ন ওঠা শুরু হয়ে গিয়েছিল, তখন মাহমুদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ঐতিহাসিক এক গৌরবের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিল। ভাগ্য সহায় থাকলে তিনিই হতে পারতেন বাংলাদেশের প্রথম টেস্টজয়ী অধিনায়ক। ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই আক্ষেপের মুলতান টেস্ট সেটি হতে দেয়নি। সেই মাহমুদেরই আজ জন্মদিন। আইসিসির ফেসবুক ও টুইটার পেজ দিনটি মনে করিয়ে দিয়েছে ক্রিকেটপ্রেমীদের।

দেশের হয়ে ১৩ টেস্ট আর ৭৭ ওয়ানডে খেলা এই অলরাউন্ডারের ক্যারিয়ার পরিসংখ্যান খুবই সাদামাটা। ১৩ টেস্ট উইকেট আর ৬৭টি ওয়ানডে উইকেট মাহমুদকে ঠিক সেভাবে চেনাতে পারে না। যেমনটা পারে না তাঁর ব্যাটিং রেকর্ড। কিন্তু বাংলাদেশের ক্রিকেটে এ খেলোয়াড়ের লড়াকু চরিত্র সব সময়ই তাঁর হয়ে কথা বলে। সীমিত সামর্থ্য দিয়েও যে একজন ক্রিকেটার নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ বানাতে পারেন—মাহমুদ বোধ হয় তাঁর দুর্দান্ত এক উদাহরণ।

default-image

মাহমুদের আন্তর্জাতিক কীর্তির সবচেয়ে বড় মঞ্চ হয়ে আছে ইংল্যান্ডের নর্দাম্পটন। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ঐতিহাসিক সে জয়ের নায়ক যে ছিলেন তিনিই। ব্যাট হাতে ২৭ রান করার পর বোলিংয়ে ৩১ রানে ৩ উইকেট নিয়ে শক্তিশালী সেই পাকিস্তান দলের মেরুদণ্ড ভেঙে দিয়েছিলেন তিনিই। শুরুতেই তাঁর বোলিং পাকিস্তানকে বিপাকে ফেলেছিল, যা থেকে ম্যাচের শেষ অবধি বেরিয়ে আসতে পারেনি তারা। দারুণ এক জয় পায় বাংলাদেশ, যেকোনো টেস্ট দলের বিপক্ষে প্রথম সে জয়ের নায়ক হিসেবেই তিনি বাংলাদেশের ক্রিকেটে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। আইসিসি তাদের ফেসবুক পেজে মাহমুদের নর্দাম্পটন-কীর্তির কথাই সবাইকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছে।

খেলা ছেড়ে কোচিংয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে, জাতীয় দলের সঙ্গে নিজেকে জড়িয়েছেন কোচ, ম্যানেজার—নানা ভূমিকায়। আলোচনায় থেকেছেন সব সময়ই। বিতর্কও তাড়া করিয়ে বেরিয়েছে তাঁকে। কিন্তু দেশের ক্রিকেটের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কটা অস্বীকার করতে পারেনি কেউই। যেমনটা অস্বীকার করা যায়নি তাঁর মাঠে বল-ব্যাট হাতে তাঁর লড়াকু চরিত্রটি।

মুলতানের সেই দুঃসহ স্মৃতির মধ্যেও মাহমুদ ছিলেন দারুণ উজ্জ্বল। তাঁর আন্তর্জাতিক সাফল্যের ছোট তালিকাটিতে মুলতান টেস্টে তুলে নেওয়া ৭ উইকেট চিরদিনই তাঁর লড়াকু চরিত্রটির সাক্ষী হয়ে রইবে দেশের ক্রিকেটে।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন