বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এই সিরিজে তামিম ইকবাল নেই চোটের কারণে, সাকিব আল হাসান ছুটি চেয়েছেন। মাহমুদউল্লাহ অবসর নিয়েছেন কিছুদিন আগে। মাশরাফি বিন মুর্তজা তো টেস্টে নেই অনেক বছর ধরেই। টি-টোয়েন্টিতেও নেই। আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর না নিলেও ওয়ানডেতেও বাংলাদেশ দলে মাশরাফি-অধ্যায় শেষ বলেই ধরে নিয়েছেন প্রায় সবাই।

বাংলাদেশ দলে এত বছর ধরে যে ‘পঞ্চপাণ্ডব’কে নিয়ে মাতামাতি ছিল, তাঁদের মধ্যে এই টেস্টে ছিলেন শুধু মুশফিকুর রহিম। কিন্তু জয়সূচক রানটা তাঁর ব্যাট থেকে এলেও দুই ইনিংসে তাঁর ব্যাট দেখেছে ১২ ও অপরাজিত ৫ রানের ইনিংস।

পঞ্চপাণ্ডবের চারজনকে ছাড়া এই জয়ে অনেকে যেখানে বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে উচ্ছ্বাস দেখাচ্ছেন, অনেকে আবার অযথা উল্টো খোঁচা মারছেন পঞ্চপাণ্ডবের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে।

আমি কয়েক দিন আগে বলেছিলাম, সোহান (নুরুল হাসান) সম্ভবত বাংলাদেশের সেরা উইকেটকিপার। তার মানে তো এটা নয় যে মুশফিকুর রহিম যে ১৪ বছর ধরে উইকেটকিপিং করছে, তাঁর সঙ্গে এক সিরিজের পর (নুরুলের) তুলনা করবেন!
কথার ব্যাখ্যা কীভাবে হয় সেটি বোঝাতে তামিম ইকবাল

তামিম আজ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নগদের প্রচারণার উদ্দেশ্যে ফেসবুক লাইভে আসার পর তাঁর সামনে সে প্রসঙ্গ আনা হলো। তাতে বাঁহাতি ওপেনারের উত্তর, ‘আমাদের সমস্যা হলো একটা জয় বা একটা ইনিংসের পর আমরা খুব তাড়াতাড়ি মতামত দিই। আমি কয়েক দিন আগে বলেছিলাম, সোহান (নুরুল হাসান) সম্ভবত বাংলাদেশের সেরা উইকেটকিপার। কোনো সন্দেহ নেই, আমি শতভাগ নিশ্চিত। সে দারুণ কিপার। তার মানে তো এটা নয় যে মুশফিকুর রহিম যে ১৪ বছর ধরে উইকেটকিপিং করছে, তাঁর সঙ্গে এক সিরিজের পর (নুরুলের) তুলনা করবেন!’

নিয়ত প্রতিক্রিয়াশীল বাংলাদেশের ক্রিকেট-সমাজে দলের খারাপ সময়ে খুব বেশি মানুষকে পাশে পাওয়া যায় না বলেও মন্তব্য করেন তামিম, ‘নতুন দল বা এসব আলোচনা...মতামত তো খুব তাড়াতাড়ি বদলে যায়। আজ সকালে আমার মনে হচ্ছিল হঠাৎ করে বাংলাদেশের ক্রিকেট ফ্যান অনেক বেড়ে গেল। এত দিন কিন্তু কেউ ছিল না। আজকে দেখি যে অনেক ক্রিকেট ফ্যান বাংলাদেশের। সবাই স্ট্যাটাস দিচ্ছে। ভালো সময় পাশে থাকাটা খুব সহজ। খারাপ সময়ে থাকাটা হলো সবচেয়ে কঠিন।’

default-image

বাংলাদেশ দল গত কিছুদিনে কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে গেলেও ঘুরে দাঁড়ানোর বিশ্বাস তামিমের ছিল, ‘আমরা একটা খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলাম। আমরা ঘুরে দাঁড়াব জানতাম, সেটা যেকোনো সংস্করণেই হোক। কিন্তু এত বিশাল কিছু করে ঘুরে দাঁড়াব, সেটা আমিও আশা করিনি।’

তবে আজ যে বাংলাদেশ জিততে যাচ্ছে, সেটা গতকালই ভাবতে পেরেছিলেন তামিম। ফেসবুক লাইভে তা-ই বললেন, ‘আমি (গতকাল) রাতে খুব নির্ভার ছিলাম। কারণ, ম্যাচ ৯০ ভাগ আমাদের হাতে ছিল। ওদের ৫ উইকেট পড়ে গিয়েছিল। লিডটা বেশি হয়নি, মাত্র ১৭ রানের। লিডটা বেশি হলে দুশ্চিন্তায় থাকতাম। ড্রও যদি করত বাংলাদেশ, সেটাও বড় অর্জন হতো।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন