বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

খুলনার দ্বিতীয় ইনিংসে তাইবুর নিয়েছেন ৫ উইকেট। তবে ম্যাচে ১০ উইকেট নেওয়া অলরাউন্ডার শুভাগত হোম চৌধুরী হয়েছেন ম্যাচসেরা। প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেট নেওয়া অফ স্পিনার দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছেন ৩ উইকেট। এই হারে অবনমন নিশ্চিত হয়ে যায় খুলনার।

রান তাড়ায় খুলনা ১০৭ রানেই হারিয়ে ফেলে ৭ উইকেট। দলটির লেজের ব্যাটসম্যানরা এরপর শুধু ঢাকার অপেক্ষা বাড়িয়েছেন। পাশের চার নম্বর মাঠ থেকে তখন ঢাকাকে সুখবর দিচ্ছিলেন সিলেটের বোলাররা।

default-image

৫ উইকেটে ৪৫৫ রান নিয়ে দিন শুরু করা সিলেটের প্রথম ইনিংস ৫৪০ রানে থামতেই কার্যত নির্ধারিত হয়ে যায় ম্যাচের ভাগ্য। ১৪০ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু রংপুর ১২৯ রানে হারিয়ে ফেলে পঞ্চম উইকেট। পাশের মাঠে ঢাকার চ্যাম্পিয়নশিপ নির্ধারিত হয়ে যাওয়ার কিছু সময় পড়েই ড্র মেনে নেয় সিলেট ও রংপুর।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন