বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মোহনের মৃত্যুর কারণ এখনো জানা যায়নি। স্থানীয় পুলিশ বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে তদন্ত শুরু করেছে। তবে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের ধারণা, মোহন আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। তবে সেটা তিনি কেন বা কীভাবে করেছেন, সে বিষয়ে কোনো ধারণা দেওয়া হয়নি।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে মোহন চাকরিতে যোগ দেন ২০০৪ সালে। এর আগে তিনি মোহালির পাঞ্জাব ক্রিকেট গ্রাউন্ডে কিউরেটর হিসেবে হাতেখড়ি নেন। পাঞ্জাব ক্রিকেট গ্রাউন্ডে মোহন ১৯৯৪ সাল থেকে চাকরি করতেন। প্রথমে তিনি মাঠের সুপারভাইজার হিসেবে ছিলেন। একই সঙ্গে সেখানে বিভিন্ন খেলার কোচদের সহকারী হিসেবেও কাজ করেছেন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন