এমনিতে এ চক্রে পয়েন্ট টেবিলে বাংলাদেশ আছে দুইয়ে। ১২ ম্যাচে ৮০ পয়েন্ট নিয়ে ইংল্যান্ডের পরই তাদের অবস্থান। এ সময়ে বাংলাদেশ হেরেছে ৪টি ম্যাচ।অন্যদিকে আফগানিস্তানের অবস্থান ৬ নম্বরে। ৬ ম্যাচ খেলে এখনো কোনো ম্যাচ হারেনি আফগানরা, পেয়েছে পূর্ণ ৬০ পয়েন্টই।

আজকের পর দ্বিতীয় ম্যাচটি ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২৮ ফেব্রুয়ারি হবে সিরিজের শেষ ম্যাচ।

default-image

ইংল্যান্ডকে টপকে যেতে হলে বাংলাদেশের প্রয়োজন ১৬ পয়েন্ট। এমনিতে প্রতিটি জয়ের জন্য আছে ১০ পয়েন্ট, কোনো ম্যাচ পরিত্যক্ত বা টাই হলে ৫ পয়েন্ট। স্বাভাবিকভাবেই হারলে কোনো পয়েন্ট নেই।

তিন ম্যাচের সিরিজে আফগানিস্তানকে ধবলধোলাই করতে পারলে বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ১১০, যদি না কোনো পেনাল্টি হয় (স্লো ওভাররেটের কারণে পয়েন্ট কাটা যাওয়ার পদ্ধতি আছে)। সে ক্ষেত্রে ইংল্যান্ডকে টপকে শীর্ষে উঠে যাবে বাংলাদেশ। ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতলেও বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ১০০, ইংল্যান্ডের এখনকার পয়েন্টের চেয়ে যা ৫ বেশি।

default-image

তবে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হারলে ইংল্যান্ডকে আর টপকানো হবে না বাংলাদেশের। আর বাংলাদেশকে ধবলধোলাই করতে পারলে আফগানিস্তানের পয়েন্ট হবে ৯০, সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিলেও টপকে যাবে তারা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন