default-image

সেদিন বেঙ্গালুরুকে টেনেছিলেন ৯৬ রান করা ফাফ ডু প্লেসি। আজ ডু প্লেসির বিদায়ের পরই নামায় মূল দায়িত্ব ছিল কোহলিরই। সেই কোহলিই যখন শূন্য রানে ফিরেছেন, তখন ধস নামার শঙ্কা জেগেছিল। ৮ রানের মধ্যে টপ অর্ডারকে বিদায় করে দিয়েছেন ইয়ানসেন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল বা দুর্দান্ত ফর্মে থাকা দীনেশ কার্তিকের ওপর ভরসা কর দলটিকে আজ হতাশ হতে হয়েছে।

শীর্ষ ছয় ব্যাটসম্যানই আজ হয় বোল্ড হয়েছেন , না হলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন। নটরাজন, উমরান মালিক ও জগদীশ সুচিতদের সামনে মাত্র ৬৮ রানেই গুটিয়ে গেছে বেঙ্গালুরু। ইনিংসের ২৩ বলই অব্যবহৃত রয়ে গেছে তাদের।

default-image

এতে নিজেদের একটি রেকর্ড ভেঙেছে হায়দরাবাদ। আইপিএলে এটা তাদের সেরা বোলিং দাপট। ২০১৩ সালে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসকে ৮০ রানে গুটিয়ে দেওয়ার রেকর্ড থেকে ১২ রান ছেঁটে ফেলেছে দলটি।

হায়দরাবাদের আনন্দের উল্টোদিকেই আছে বেঙ্গালুরুর হতাশা। আইপিএলে সর্বনিম্ন রানের রেকর্ডটি তাদের। ২০১৭ সালে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ৯.৪ ওভারে মাত্র ৪৯ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল তারা। আজ ৪৯ রানে ৭ উইকেট হারানো বেঙ্গালুরু পরের ৩ উইকেটে আরও ১৯ রান যোগ করেছে। তাতে কোনোমতে শীর্ষ পাঁচ এড়াতে পেরেছে দলটি।

default-image

বেঙ্গালুরু ৪৯ রানের পর বাকি চারটি স্কোর ভাগাভাগি করে নিয়েছে তিন দল। ২০০৯ সালে এই বেঙ্গালুরু বিপক্ষেই ৫৮ রানে অলআউট হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস। ২০১৭ আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে ৬৬ ও ৬৭ রানে অলআউট হয়েছিল দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। আর প্রথম আইপিএলে মুম্বাইয়ের বিপক্ষে ৬৭ রানে থেমেছিল কলকাতা।

মাত্র ৬৯ রানের লক্ষ্য অনায়াসে পেরিয়ে গেছে হায়দরাবাদ, কেন উইলিয়ামসন তবু একটু রয়েসয়ে ব্যাট করেছেন, অন্যদিকে অভিষেক শর্মা ঝড় তুলেছেন। ২৮ বলে ৪৭ করে আউট হয়েছেন শর্মা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন