বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নাজমুল হাসান বলেছেন, ‘আমি যদি এখানে থাকি, আমার একটা জিনিস মনে হচ্ছে যে আমি মারা না যাওয়া পর্যন্ত কেউ এই পদটা নিতে চাইবে না। এটা একটা ভুল জিনিস, আমি এটা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি না। আমি চাই, আমার বোর্ডে যারাই আসুক, তারা চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করুক, আমি সভাপতি হতে চাই। অন্তত বলুক, এখন তো কেউ বলেও না। এটা ভালো দিক না। কারও জন্য কিছু আটকে থাকে না। আমাদের একটা পাইপলাইন থাকা উচিত, নতুন যারা দায়িত্ব নেবে।’

default-image

ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচনে সুস্থ প্রতিযোগিতা সৃষ্টি করতেই নাকি নাজমুল হাসানের এই সিদ্ধান্ত, ‘প্রতিবার একটা প্যানেল থাকে। প্যানেলটা দিলে হয় কি, আর কেউ দাঁড়ায়ই না। অপ্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে যাচ্ছে। এবার তো প্যানেলেই নেই। এবার তো কেউ বলতে পারবে না যে এ আমার প্রার্থী কিংবা ও আমার প্রার্থী। আমি আশা করব, এবার নির্বাচনটা হোক।’

নতুন নেতৃত্ব, নতুন চিন্তাধারা ক্রিকেট বোর্ডে আসুক—এটাই নাজমুল হাসানের চাওয়া। ‘আবারও বলে নিচ্ছি, এবারের নির্বাচনটা একটু ভিন্ন। আমি আগে থেকেই বলে আসছি, আবারও বলছি, সাধারণ যে জিনিসটা হয়, আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি, নতুন ভাবনা, নতুন মানসিকতা যদি না আসে ক্রিকেট বোর্ডে, তাহলে সব একই ধারায় চলতে থাকে। এবার আমি মনেপ্রাণে চাইছি নতুন লোকের আসা উচিত’, বলেছেন নাজমুল হাসান।

default-image

তবে নাজমুল হাসান পরিচালক হিসেবে বোর্ডে থাকার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। নতুন নেতৃত্ব এলে তাদের সম্পূর্ণ সহায়তা করার আশ্বাসও দেন তিনি, ‘আমি চেষ্টা করব এবং চাইব যে নতুন কেউ আসুক। নতুন কেউ এলে খুশি হব। আমি পুরোপুরি সমর্থন দেব, কোনো অসুবিধা নেই। যে–ই আসুক, আমি তাদের পূর্ণ সমর্থন দেব। আমরা যদি হেরেও যাই, নতুন যারা আসবে, তাদের সমর্থন দেব। আমাকে যখন যা বলবে, তখন তাই করব। এটা কিন্তু ঠিক নয় যে একরকমভাবে চলছে চলবেই। আর কারও ইচ্ছে থাকবে না, থাকলে বলবেও না। এই জিনিসটা মনে হয় ঠিক নয়।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন