শোয়েব মালিক ও সানিয়া মির্জার সঙ্গে তাঁদের ছেলে ইজহান
শোয়েব মালিক ও সানিয়া মির্জার সঙ্গে তাঁদের ছেলে ইজহানইনস্টাগ্রাম

একটি যুগল ছবি। ২৩ শব্দের একটি ক্যাপশন। সেখানে মাঝে মাঝে গুঁজে দেওয়া ভালোবাসা, খোঁচা ও হাসির ইমো। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে এভাবেই স্বামী শোয়েব মালিককে নিজেদের ১১তম বিবাহবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সানিয়া মির্জা। ছবি বা ক্যাপশনজুড়েই উপচে পড়া ভালোবাসার লুকানো গল্প।

default-image


দুটি ছবির একটিতে নিজের গর্ভধারণের সময়ের স্মৃতি স্মরণ করেছেন ৩৪ বছর বয়সী সানিয়া। কিন্তু জ্বালাতন ছাড়া যে ভালোবাসা জমে না, সেটির বহিঃপ্রকাশ যেন বেশি করে জানাতে চেয়েছেন সানিয়া। ছোট ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘ভালো-মন্দ, চড়াই-উতরাইয়ের মধ্যে দিয়ে কাটিয়েছি আমরা। জীবনের সেরা মানুষটিকে বিবাহবার্ষিকীর শুভেচ্ছা। আরও অনেক বছর তোমাকে জ্বালাতে চাই।’ নিজেদের ১১তম ইনিংসে শুভেচ্ছা বৃষ্টিতে ভেসে যাচ্ছেন তাঁরাও। পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মন্তব্যে যোগ হচ্ছে অভিনন্দন বার্তা।

বিজ্ঞাপন


পাকিস্তানের ক্রিকেটার শোয়েব ও ভারতীয় টেনিস খেলোয়াড় সানিয়া  জীবনের ইনিংসে জুটি বেঁধেছিলেন ২০১০ সালের ১২ এপ্রিল । পাকিস্তান ও ভারতের রাজনৈতিক বৈরিতার কারণে তাঁদের সেই বিয়ে আরও বেশি আলোচিত হয়েছে। সমর্থকেরা ভালোবেসে এ জুটির নাম দিয়েছেন ‘শোয়েনিয়া’। ২০১৮ সালের অক্টোবরে তাঁদের সংসারে পুত্র ইজহান মির্জা মালিকের আগমনে সম্পর্কের গভীরতা বেড়েছে আরও।


খেলার মাঠে ফর্মের তুঙ্গে থাকা অবস্থায় দুজনের প্রেম। বিয়ে পর্যন্ত গড়াতেও সময় নেয়নি। দুজনার চার হাত এক হওয়ার পর পারফরম্যান্সের ধার বেড়ে গিয়েছিল আরও। বিয়ের পর ভারতের জার্সিতে মিশ্র দ্বৈততে তিনটি শিরোপা জিতেছেন সানিয়া। ২০১৮ সালে মাতৃত্বকালীন সময়ে কিছু র‍্যাকেট তুলে রাখলেও আবার ফিরে এসেছেন কোর্টে। খেলেছেন কাতার ওপেনে।

default-image

অন্যদিকে ৩৯ বছর বয়সেও থামছেন না শোয়েব। পাকিস্তানের জার্সিতে ১৯৯৯ সালে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু করে ৩৫ টেস্ট, ২৮৭ ওয়ানডে ও ১১৬টি টি–টোয়েন্টি খেলেছেন তিনি। ২০১৫ সালে টেস্ট থেকে অবসর নিলেও এরপরে ছোট সংস্করণে খেলেছেন। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর অবসর নেন ওয়ানডে থেকেও। ২০২০ সালেও পাকিস্তানের হয়ে টি-টোয়েন্টি খেলেছেন এই অলরাউন্ডার।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন