মধ্যাহ্নবিরতি: রংপুর ১ম ইনিংস ১০৯/১ (তানভীর ১০*, লিটন ৯১*)।
চা-বিরতি: রংপুর ১ম ইনিংস ১৮১/২ (নাঈম ১*, লিটন ১৪৯*)।
সংক্ষিপ্ত স্কোরটা কাল শুরু হওয়া জাতীয় লিগের চতুর্থ রাউন্ডের বরিশাল-রংপুর ম্যাচের প্রথম দিনের। বিকেএসপির ৩ নম্বর মাঠ দেখল লিটন দাসের ব্যাটিং আধিপত্য। রংপুরের ওপেনার শেষ পর্যন্ত ফিরেছেন দলীয় ২২৮ রানে ক্যারিয়ার-সর্বোচ্চ ১৭৫ রান করে। এবারের লিগে লিটনের তৃতীয় সেঞ্চুরিতে রংপুর দিন শেষ করেছে ৪ উইকেটে ২৬৮ রানে। লিটনের ২৩২ বলের ইনিংসে ছিল ২৪ চার ও ৪ ছয়।
কাল সেঞ্চুরি হয়েছে আরও তিনটি। বিকেএসপির ২ নম্বর মাঠে ১১১ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন ঢাকা মহানগরের অধিনায়ক মার্শাল আইয়ুব। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট মার্শালের ১০ম সেঞ্চুরিতে চট্টগ্রামের বিপক্ষে দিন শেষ মহানগরের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ২৯০। চট্টগ্রামের লেগ স্পিনার নূর হোসেন একাই পেয়েছেন ৫ উইকেট।
ফতুল্লায় দুই অভিজ্ঞ রাজিন সালেহ (১১৮*) ও অলক কাপালির (১১৮*) সেঞ্চুরিতে ঢাকা বিভাগের বিপক্ষে ৩ উইকেটে ২৯১ রান তুলেছে সিলেট। সিলেট ৩ উইকেট হারায় ৫২ রানেই। এরপর চতুর্থ উইকেটে ২৩৯ রান যোগ করেছেন রাজিন-অলক। ব্যক্তিগত ১১৫ রানের মাথায় প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মোট রানে মোহাম্মদ আশরাফুলকে ছাড়িয়ে গেছেন রাজিন (৬৯২২)। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে রাজিনের ওপরে শুধু তুষার ইমরান (৭০৬৯)।
মিরপুরে তুষার (৬৩*) ও মেহেদীর (৫১) ফিফটিতে রাজশাহীর বিপক্ষে ৫ উইকেটে ২৫৬ রান করেছে খুলনা।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন