বৃষ্টি আর দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ স্মৃতিকে একই ফ্রেমে বন্দী করলে যে ছবিটা ভেসে ওঠে, তা শুধুই আক্ষেপে পোড়ায় প্রোটিয়াদের। ১৯৯২-এর সেমিফাইনালে ১ বলে ২২ রানের ট্র্যাজেডি কিংবা ২০০৩ সালের সাজঘর থেকে বাউচারকে পাঠানো ভুল হিসাব। যদি পুরোনো শত্রু বাগড়া বাধায় আবারও! দক্ষিণ আফ্রিকা দল তাই এবার চূড়ান্ত প্রস্তুতিটা নিয়ে রাখছে। কাইল অ্যাবোট জানালেন, বৃষ্টি হানা দেওয়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচেও প্রতিটি রানের হিসাব তাঁরা রেখেছিলেন, ‘আমরা খোলা মন নিয়েই প্রস্তুতি ম্যাচে নেমেছিলাম। কিন্তু ম্যাচের সঙ্গে সঙ্গে ড্রেসিং রুমের পরিবেশও যেভাবে বদলে গেল, সেটা দারুণ। আমরা তো প্রতিটি রানই গুনছিলাম।’ ম্যাচটিকে দক্ষিণ আফ্রিকা হালকাভাবে নেয়নি বলেও জানালেন অ্যাবোট, ‘একঘেয়ে কোনো ম্যাচ থেকে আপনি যদি কোনো প্রতিযোগিতাপূর্ণ ক্রিকেট বের করে আনতে পারেন, তাহলে তা অবশ্যই ভালো। প্রতিটি রানকেই সবাই গুরুত্ব দিয়েছে। আমরা এটিকে আর দশটা ম্যাচের মতো করেই জিততে চেয়েছি।’ এনডিটিভি।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন