ইংলিশের পর মার্কিন হতে চান প্লাঙ্কেট

বিজ্ঞাপন
default-image

বয়স ৩৫ হয়ে গেছে, তবে আধুনিক ক্রিকেটে এটা তেমন কিছু নয়। ইংল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা লিয়াম প্লাঙ্কেট তাই নতুন রোমাঞ্চের খোঁজ করতেই পারেন। এই পেস বোলিং অলরাউন্ডার তাই ভবিষ্যতে যুক্তরাস্ট্রের হয়ে খেলার আশা মনের মধ্যে জিইয়ে রেখেছেন।

পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ উপলক্ষ্যে করোনা সংক্রমোনের মাঝে অনুশীলনে ফিরেছে ইংল্যান্ড। প্রাথমিকভাবে ৫৫ খেলোয়াড়কে ডেকেছে তারা। এত বিশাল স্কোয়াডেও জায়গা মিলেনি প্লাঙ্কেটের। ইংল্যান্ডের জাতীয় দল সংশ্লিষ্টরা যে তাঁকে নিয়ে আর খুব বেশি আগ্রহী নয়, সেটা টের পেতে অসুবিধা হচ্ছে না তাঁর। এ অবস্থায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের স্বাদ পেতে বিকল্প পথও ভেবে নিয়েছেন প্লাঙ্কেট।

মার্কিন স্ত্রীর সুবাদে যুক্তরাস্ট্রের নাগরিকত্ব পাওয়ার পথ খোলা প্লাঙ্কেটের সামনে। সুযোগটা যে নিতে পারেন সেটা জানিয়েছেন বিবিসিকে, 'ওখানে ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িত হতে পারলে ভালোই লাগবে। আমার বাচ্চারা হয়তো আমেরিকান হবে। সেক্ষেত্রে যদি বলতে পারি আমি ইংল্যান্ড ও যুক্তরাস্ট্র দুই দলের হয়েই খেলেছি, তাহলে দারুণ হবে।'


২০১৯ সালে ওয়ানডে স্ট্যাটাস পেয়েছে যুক্তরাস্ট্র। দেশটিতে তিন বছর বাস করলে খেলার যোগ্যতা পাওয়া যায়। এরই মাঝে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ব্যাটসম্যান জাভিয়ের মার্শাল, হ্যামশায়ারের ইয়ান হলান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাস্টি থেরন সবাই এখন তাই চাইলেই খেলতে পারবেন যুক্তরাস্ট্রের হয়ে। যুক্তরাস্ট্রেই থিতু হতে চাওয়া প্লাঙ্কেট সে পথেই হাঁটতে পারেন, 'আমি একজন ইংলিশ এবং সব সময় ইংলিশম্যান থাকব। কিন্তু আমি এখনো ফিট এবং যদি সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলার সুযোগ থাকলে কেন নিব না? আমি যদি ওখানে যাই এবং যুক্তরাস্ট্রের নাগরিক হই, অথবা গ্রীন কার্ড পাই, তাহলে ওদের উন্নতিতে অবদান রাখতে পারব। ইংল্যান্ডের হয়ে সব শেষ করার পর ওদের সঙ্গে যুক্ত হতে পারলে খুব ভালো হবে।'

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন