বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

পাঁচ বছর ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের দায়িত্বে ছিলেন রুট। অ্যালিস্টার কুকের কাছ থেকে দায়িত্ব পেয়ে দেশকে ২৭ টেস্টে জয় এনে দিয়েছেন। কিন্তু গত এক বছরে টানা ব্যর্থতা তাঁর অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছিল। ইয়ান চ্যাপেল তো অ্যাশেজের সময় বলেছেন, রুটের অধিনায়কত্ব হচ্ছে, ‘ভালো অধিনায়কের বিপরীত।’ অ্যাশেজের পরই তাঁর পদত্যাগ চেয়েছিলেন আথারটনরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে সিরিজ হারের পর আর দায়িত্ব ধরে রাখার ইচ্ছা হয়নি রুটেরও। গতকাল সরে গেছেন দায়িত্ব থেকে।

রুটের বিদায়ে ইংল্যান্ডের ছেলেদের ক্রিকেট দলের নেতৃস্থানীয় আরেকটি পদ শূন্য হলো। প্রধান কোচ, ছেলেদের ক্রিকেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, প্রধান নির্বাচক, এখন টেস্ট অধিনায়কও যুক্ত হলো। আপাতত অধিনায়ক কে হবেন, সে প্রশ্নের উত্তর আছে মাইকেল ভনদের কাছে। বিবিসির সঙ্গে কথোপকথনে ভন স্টোকসকে বেছে নিয়েছেন বুদ্ধিমত্তার কারণে, ‘আমি অন্য কাউকে দেখছি না যে এই দায়িত্ব নিতে পারবে এবং দলে তার জায়গাও পাকা। বেন স্টোকসকে বেছে নিলে আপনি এমন কাউকে পাচ্ছেন, যার বুদ্ধিদীপ্ত ক্রিকেট মস্তিষ্ক আছে এবং সে নিজের সর্বোচ্চ দেবে। সতীর্থদের সম্মানটাও পাবে সে।’

মাইকেল আথারটনের চোখে স্টোকসই হবেন পরবর্তী অধিনায়ক। কারণ, বর্তমান সমস্যার একমাত্র যৌক্তিক সমাধান স্টোকসই। এই অলরাউন্ডারের পক্ষে তাঁর যুক্তি, আর কেউ তো নেই দলে! স্কাই স্পোর্টসকে বলেছেন, ‘বেন স্টোকসই একমাত্র পছন্দ। জো রুট নিজ থেকে সরে গেছে, এ ব্যাপারটা সাহায্য করবে। বেন স্টোকস রুটের অনেক অনুগত ছিল এবং রুট নিজ থেকে সরে যাওয়ায় স্টোকস এই দায়িত্ব এখন স্বচ্ছন্দে নিতে পারবে।’

default-image

নাসের হুসেইনেরও পছন্দ স্টোকস। তবে মানসিক অবসাদের কারণে গত বছর বেশ লম্বা একটা সময় ছুটিতে যাওয়া এই অলরাউন্ডারের ব্যাপারে তাঁর মনে একটা ‘কিন্তু’ আছে। ডেইলি মেইলের কলামে লিখেছেন, ‘এই কাজের জন্য আপনাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে ভালো থাকতে হবে। মাঠের বাইরের এই সমস্যাগুলো বেনের আছে। ক্রিকেট পরিচালক পদে যিনিই আসুন না কেন, তাঁর প্রথম কাজ হবে স্টোকসের সঙ্গে বসা, ওর চোখে চোখ রেখে কথা বলা, ওর অবস্থা বোঝা।’

নাসেরের কথা—স্টোকস যদি এই দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত না থাকে, তাহলে আপাতত ৩৫ বছর বয়সী স্টুয়ার্ট ব্রডকে বেছে নেওয়া যায়। ‘স্বল্প মেয়াদে এই গ্রীষ্মের সেরা দল বেছে নিতে চাইলে ব্রডকে দিতে হবে দায়িত্ব। স্টুয়ার্টের দুর্দান্ত ক্রিকেট মস্তিষ্ক আছে, অনেক অভিজ্ঞতা এবং একজন লড়াকু, যে প্রতিটি ম্যাচেই জিততে চায়। গত কয়েক মাসের অভিজ্ঞতার পর নিজেকে প্রমাণের দায় আছে ওর। আমরা সবাই জানি এমন পরিস্থিতিতে ও কতটা ভয়ংকর।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন