এ মুহূর্তে আইপিএলের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের দায়িত্ব পালন করছেন ম্যাককালাম। খাতা-কলমে টিকে থাকলেও কার্যত প্লে-অফের আশা শেষ হয়ে গেছে দলটির। তিন মৌসুম ধরেই কলকাতার প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করে আসছেন ম্যাককালাম। তবে ক্যারিয়ারে কখনো প্রথম শ্রেণির কোনো ম্যাচে কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা হয়নি তাঁর। সেই ম্যাককালামকেই নতুন টেস্ট কোচ হিসেবে বেছে নিয়ে তাই একটা চমকই দিল ইংল্যান্ড। কলকাতা ছাড়াও ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে ট্রিনবাগো নাইট রাইডার্সকে কোচিং করিয়েছেন তিনি

ইসিবি বলেছে, নিজের সাক্ষাৎকারে নির্বাচক কমিটিকে মুগ্ধ করেছেন ম্যাককালাম। আর তাঁর নিয়োগের ব্যাপারে ইসিবির ছেলেদের ক্রিকেটের নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক কি বলেছেন, ‘ব্রেন্ডনকে ইংল্যান্ডের ছেলেদের টেস্টের প্রধান কোচ হিসেবে নিশ্চিত করতে পেরে আমরা উচ্ছ্বসিত। তাকে জানা এবং খেলা সম্পর্কে তার দৃষ্টিভঙ্গি বুঝতে পারাটা একটা বড় পাওয়া। আমার বিশ্বাস, তার নিয়োগ ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের জন্য দারুণ হবে। ক্রিকেট সংস্কৃতি ও পরিবেশ বদলানোর ব্যাপারে সাম্প্রতিক ইতিহাস আছে তার। আমার বিশ্বাস, ইংল্যান্ডের লাল বলের ক্রিকেটের ক্ষেত্রেও সে করতে পারবে সেটি।’

default-image

অধিনায়ক বেন স্টোকস আর কোচ ম্যাককালামকে নিয়ে ইংল্যান্ড দলে রোমাঞ্চকর এক জুটিই গড়ে উঠতে যাচ্ছে তাই। কি বলছেন রোমাঞ্চের জন্য প্রস্তুত থাকতে, ‘আমার বিশ্বাস ব্রেন্ডন ও বেন স্টোকস—ভয়ংকর এক অধিনায়ক-কোচ জুটি। সময় এসেছে সিটবেল্ট বেঁধে এ যাত্রায় শামিল হওয়ার।’

আর দায়িত্ব পাওয়ার পর ম্যাককালাম বলেছেন, ‘ইংল্যান্ডের টেস্ট দলে ইতিবাচক অবদান রাখার সুযোগ পেয়ে ও দলকে আরও সফল এক যুগে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে আমি কতটা খুশি, সেটি বলতে চাই। এ মুহূর্তে দল যে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি, আমি বিশ্বাস করি আমার সামর্থ্য দিয়ে দলকে সহায়তা করতে পারব।’ স্টোকসের সঙ্গেও কাজ করতে মুখিয়ে আছেন তিনি।

default-image

কি ইংল্যান্ড দলের জন্য দীর্ঘ ও সীমিত ওভারের সংস্করণে দুজন আলাদা প্রধান কোচ চান, সে ইঙ্গিত ছিল আগে থেকেই। সাদা বলের কোচ হিসেবে ম্যাককালামের নাম প্রত্যাশিতই ছিল। শেষ পর্যন্ত দলটির টেস্ট কোচের দায়িত্ব নিলেন ১০১টি টেস্ট খেলা নিউজিল্যান্ডের সাবেক টেস্ট অধিনায়ক। ম্যাককালামের সঙ্গে সম্ভাব্য তালিকায় ছিলেন গ্যারি কারস্টেন, সাইমন ক্যাটিচ, পল কলিংউড।

২০১৯ সালে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া ম্যাককালাম ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডকে ফাইনালে নিয়ে গিয়েছিলেন। আর টেস্ট ক্রিকেটে যে ‘বিপ্লব’ শুরু করেছিলেন, তারই পথ ধরে গত বছর প্রথম টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতেছে নিউজিল্যান্ড।

গত অ্যাশেজের ভরাডুবির পর প্রধান কোচ ক্রিস সিলভারউডকে ছাঁটাই করে ইংল্যান্ড। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব পালন করেছিলেন কলিংউড।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন