বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এখন জানা গেল, পাকিস্তানে সিরিজ খেলতে আসা নিয়ে দোটানায় পড়েছে অস্ট্রেলিয়াও। নিউজিল্যান্ডের হঠাৎ এমন সফর বাতিলের সিদ্ধান্ত পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে, এমনটা আগেই আশঙ্কা করছিলেন পাকিস্তানের সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেটাররা।

সাবেক ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার বলেছিলেন, পাকিস্তান ক্রিকেটকে ‘খুন’ করেছে নিউজিল্যান্ড। ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া যদি এবার সফর বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়, শোয়েবের শঙ্কা অনেকটাই সত্য হবে!

default-image

অস্ট্রেলিয়ান অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এএপি) প্রতিবেদক রব ফোরসেথ জানিয়েছেন বিষয়টা। এমনিতেই ২৩ বছর ধরে পাকিস্তানে কোনো সিরিজ খেলতে যায় না অস্ট্রেলিয়া। শেষ গিয়েছিল সেই ১৯৯৮ সালে, যেবার মার্ক টেলর অনবদ্য ৩৩৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

২০২২ সালে ফেব্রুয়ারি-মার্চের দিকে পাকিস্তান সফরে যাবে অস্ট্রেলিয়া, এমনটাই কথা হয়ে ছিল। নিউজিল্যান্ড সফর বাতিলের কারণে ওই সিরিজের ভাগ্যাকাশেও আজ অনিশ্চয়তার মেঘ।

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের সাবেক প্রধান নির্বাহী কেভিন রবার্টস ২০১৯ সালে পাকিস্তান সফর করে গিয়েছিলেন। দুই বোর্ডের মধ্যে সেবারই এই সিরিজ নিয়ে ইতিবাচক কথাবার্তা হয়েছিল।

কিন্তু নিউজিল্যান্ডের পাশাপাশি ইংল্যান্ডও যদি পাকিস্তানে তাদের সফর বাতিলের ঘোষণা দেয়, তাহলে অস্ট্রেলিয়াও নিজেদের সিদ্ধান্ত বদলাতে পারে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছেন ফোরসেথ।

default-image

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এক মুখপাত্র এ বিষয়ে জানিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়া ব্যাপারটা গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে। সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে এ নিয়ে আলোচনায় বসার একটা সিদ্ধান্তও নিয়ে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। কয়েক বছর ধরেই অস্ট্রেলিয়া স্পষ্টভাবে জানিয়েছে, পাকিস্তান সফর করতে তাদের আপত্তি নেই, কিন্তু নিরাপত্তার বিষয়টা খুব ভালোভাবে নিশ্চিত করতে হবে।

পাকিস্তান সফর বাতিল করা হবে কি না, এ নিয়ে এখনই কোনো সিদ্ধান্তে আসতে চাইছে না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া, এমনটাই জানিয়েছেন ফোরসেথ।

২০০৯ সালে সফরকারী শ্রীলঙ্কা দলে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছিল, আক্রান্ত ব্যক্তিদের তালিকায় অন্যদের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কার তৎকালীন অস্ট্রেলিয়ান কোচ ট্রেভর বেলিসও ছিলেন।

এর পর থেকেই দুবাই আর আবুধাবিকে নিজেদের ঘরোয়া সিরিজগুলো খেলার জন্য বেছে নিয়েছিল পাকিস্তান। সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তানে ক্রিকেট ফিরেছে ঠিকই, কিন্তু নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা থেকেই গেছে।

যদিও গত দুবছরে দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কা এসে পাকিস্তানে খেলে গেছে, কিন্তু নিউজিল্যান্ডের এই ঘটনার কারণে আবারও চিন্তার ভাঁজ বেড়েছে পাকিস্তানের কপালে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন