নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৫৩ রানে ৬ উইকেট হারিয়েছিল ইংল্যান্ড। শেষ ব্যাটসম্যান সাকিব মাহমুদের ৪৯ ও দশে নামা জ্যাক লিচের অপরাজিত ৪১ রানে ২০৪ রানে অলআউট হয়ে প্রথম দিনের খেলা শেষ করে ইংল্যান্ড।

আজ দ্বিতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজও একই বিপদে পড়ে। ৯৫ রানের মধ্যে নেই ৬ উইকেট। কিন্তু জশুয়া দা সিলভার অপরাজিত ৫৪ রানে ৮ উইকেটে ২৩২ রান তুলে দ্বিতীয় দিন পার করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম ইনিংসে ২৮ রানের লিড পেয়েছে স্বাগতিকেরা।

default-image

প্রথম দিনে ১১৪ রানে ৯ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। লিচ ও মাহমুদের ২১৮ বলে ৯০ রানের জুটিতে দুই শ পার করে ইংল্যান্ড। আজ দ্বিতীয় দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজও প্রায় একই অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যায়। কিন্তু সপ্তম উইকেটে কাইল মেয়ার্স-সিলভার ৩৩, অষ্টম উইকেটে আলজারি জোসেফকে নিয়ে সিলভার ৪৯ এবং নবম উইকেটে কেমার রোচকে নিয়ে তাঁর অবিচ্ছিন্ন ৫৫ রানের জুটিতে লিড পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

জোসেফ ও মেয়ার্স ২৮ রান করে আউট জন। ২৫ রানে অপরাজিত রোচ।

তবে ক্রেগ ব্রাফেটের দলের শুরুটা ভালোই ছিল। বেন স্টোকসের বলে আউট হওয়ার আগে জন ক্যাম্পবেলের সঙ্গে ওপেনিং জুটিতে ৫০ রান তোলেন ব্রাফেট (১৭)।

টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ অর্ধশতক তুলে নেওয়ার পথে ১৫২ বল খেলে অপরাজিত আছেন জশুয়া দা সিলভা। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে এটা তাঁর প্রথম অর্ধশতক।

default-image

দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে সিলভা বলেছেন, ‘ঘরের মাঠে আমার ফর্ম তেমন ভালো না। তাই ঘরের সমর্থকদের সামনে রান করতে পেরে ভালো লাগছে।’ ৩ উইকেট নেন ইংল্যান্ডের পেস অলরাউন্ডার ক্রিস ওকস। ২টি করে উইকেট ক্রেগ ওভারটন ও স্টোকসের।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন