ইংল্যান্ড তাকিয়ে স্টোকসের 'মিরাকলে', পাকিস্তান ইয়াসিরের ঘূর্ণিতে

বিজ্ঞাপন
default-image
>ওল্ড ট্রাফোর্ডে কাল পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে ম্যাচে ফেরাতে বল হাতে জ্বলে উঠেছেন সময়ের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। স্টোকসের আরেকটি মিরাকলে ভর করে জমে ওঠা ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্ট জয়ের স্বপ্ন দেখছে ইংলিশরা। সিরিজের প্রথম টেস্ট জেতার স্বপ্ন দেখছে পাকিস্তানও। আর এ ক্ষেত্রে পাকিস্তানের স্পিন বোলিং কোচ মুশতাক আহমেদের ভরসা তাঁর দুই লেগস্পিনার ইয়াসির শাহ ও শাদাব খান

বেন স্টোকসের অলৌকিক পারফরম্যান্সের ঘোড়া ছুটছেই! গত বছর ফাইনালে অপরাজিত ৮৪ রান করে দলকে বিশ্বকাপ জেতাতে রেখেছিলেন বড় ভূমিকা। এরপর অ্যাশেজে হেডিংলি টেস্টে অসাধারণ ইনিংস খেলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এনে দিয়েছিলেন অবিশ্বাস্য এক জয়। এ বছরও থেমে নেই স্টোকসের বীরত্ব–গাথা রচনা। এ বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দলকে সিরিজে ফেরাতে ওল্ড ট্রাফোর্ডে খেলেছেন অনবদ্য ১৭৬ রানের ইনিংস। সেই ওল্ড ট্রাফোর্ডেই কাল পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে ম্যাচে ফেরাতে বল হাতে জ্বলে উঠেছেন সময়ের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। তাঁর আরেকটি মিরাকলে ভর করে জমে ওঠা ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্ট জয়ের স্বপ্ন দেখছে ইংলিশরা।

সিরিজের প্রথম টেস্টটি জয়ের স্বপ্ন দেখছে পাকিস্তানও। আর এ ক্ষেত্রে পাকিস্তানের স্পিন বোলিং কোচ মুশতাক আহমেদের ভরসা তাঁর দুই লেগস্পিনার ইয়াসির শাহ ও শাদাব খান। বিশেষ করে ইয়াসিরের দিকেই তাকিয়ে আছে পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে ৬৬ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন সময়ের অন্যতম সেরা লেগস্পিনার। আরেক লেগস্পিনার শাদাব ১৩ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট।

কাল তৃতীয় দিনের খেলা শেষে ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টের ভাগ্য দুলছে পেন্ডুলামের কাটায়। প্রথম ইনিংসে ১০৭ রানের লিড পাওয়া পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসে খুব একটা ভালো ব্যাটিং করতে পারেনি। তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে ৮ উইকেটে ১৩৭ রান নিয়ে। সব মিলিয়ে লিড ২৪৪ রানের। পাকিস্তানের ব্যাটিং এলোমেলো করে দিতে বল হাতে বড় ভূমিকা রেখেছেন স্টোকস। চোটের কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে বল করতে পারেননি। তবে কাল পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংস এলোমেলো করে দিতে ১১ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন স্টোকস। উইকেট দুটি তিনি নিয়েছেন ২১ বলের মধ্যে।

default-image

বল হাতে স্টোকসের এই জ্বলে ওঠা দেখে অ্যাশেজের হেডিংলি টেস্টের কথা মনে পড়ে যাচ্ছে সতীর্থ ক্রিস ওকসের। হেডিংলির মতো ওল্ড ট্রাফোর্ডেও আরেকটি স্টোকস–জাদু দেখার অপেক্ষায় আছেন তিনি, 'স্টোকস যা করেছে তাতে আমি একটু বিস্মিতও হইনি। এটাই বেন স্টোকস। আমরা সবাই জানি সে মিরাকল উপহার দিতে পারে। তার হাত যেন সোনায় বাধানো।'

ওকস যখন স্টোকসের দিকে তাকিয়ে, মুশতাক তখন টেস্ট জয়ের স্বপ্নের বুনছেন স্পিনের জাল ঘিরে। দিনের খেলা শেষে পাকিস্তানের স্পিন কোচ বলেছেন, 'আমরা আত্মবিশ্বাসী, লিড এখন ২৪৪ রানের। আর ২০ থেকে ৩০ রান হলে এই পিচে ভালো রান বলতে হবে। ইয়াসির ও শাদাব প্রথম ইনিংসে যেমন বল করেছে তাতে ওরা ছন্দ পেয়ে গেছে। ওরা পিচটা পড়তে পেরেছে আর এই পিচে কোন গতিতে বল করতে হবে সেটাও বুঝে ফেলেছে।'

আলাদা করে ইয়াসিরের কথা বলেছেন মুশতাক, 'আমি বিশেষ করে ইয়াসিরের কথা বলব। একটু জড়তা নিয়েই শুরু করেছিল ও। কিন্তু এরপর সে ভালো বল করেছে। এখন আমরা ভালো একটা লক্ষ্য দিতে পারলে ওরা (ইয়াসির ও শাদাব) আরও ভয়ংকর হয়ে উঠবে। ইয়াসির এই ম্যাচ জেতানোর সামর্থ্য রাখে।'

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন