default-image

লর্ডস টেস্টের প্রথম দিনে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে ৮৫ রানে অলআউট করে ইতিহাস গড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিল আয়ারল্যান্ড। শেষ পর্যন্ত আয়ারল্যান্ড উল্টো লজ্জার ইতিহাস গড়ল। আইরিশরা দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়েছে মাত্র ৩৮ রানে! লর্ডস টেস্ট হেরেছে তারা ১৪৩ রানে। রান ও বলের হিসাবে স্বল্পায়ু টেস্ট ইনিংসের রেকর্ড ধরে নাড়াচাড়া করতে হলো ক্রীড়া সাংবাদিকদের।

টেস্ট ইতিহাসে এক ইনিংসে সর্বনিম্ন স্কোর যদিও ২৬, নিউজিল্যান্ডের। ৬৪ বছর ধরে লজ্জার রেকর্ডটা কিউইদের অধিকারে! যেভাবে শুরু করেছিল লর্ডসে, আয়ারল্যান্ডের নামটা এসব লজ্জার রেকর্ডের সঙ্গে উচ্চারণ হওয়ার কথাই ছিল না। ইংল্যান্ডকে ৮৫ রানে অলআউট করে দিয়ে প্রথম ইনিংসে আইরিশরা করে ২০৭। পরের ইনিংসে ইংলিশদের ত্রাণকর্তা হিসেবে ১০ নম্বর ব্যাটসম্যান জ্যাক লিচ ‘নৈশপ্রহরী’ হিসেবে নেমে দুর্দান্ত ওপেনার বনে গেলেন। তাঁর ৯২ ও জেসন রয়ের ৭২ রানের সৌজন্যে দ্বিতীয় ইনিংসে ৩০৩ রান করে আয়ারল্যান্ডকে ১৮২ রানের লক্ষ্য দেয় ইংল্যান্ড।

আয়ারল্যান্ডকে এমন নাকানিচুবানি খাওয়ালেন দুই ইংলিশ ওপেনার স্টুয়ার্ট ব্রড আর ক্রিস ওকস, তাতে নবীন টেস্ট খেলুড়ে দলটির ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি অবস্থা! ১৪ রানের মধ্যে শেষ ৭ উইকেট পড়েছে আইরিশদের। ওপেনার জেমস ম্যাককালাম বাদে আর কোনো ব্যাটসম্যান দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। ওকস নিয়েছেন ৬ উইকেট। বাকি ৪টি ব্রডের।

টেস্টটা ছিল চার দিনের। অথচ সেটি গড়াল না আড়াই দিনেও। আয়ারল্যান্ড আবার বুঝল, টেস্ট ক্রিকেট কতটা কঠিন। আর ইংলিশরা বার্তা দিয়ে রাখল অস্ট্রেলিয়াকে—অ্যাশেজের জন্য তারা তৈরি! এই টেস্টে তারাও তো কম উত্থান-পতনের ভেতর দিয়ে যায়নি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন