বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শিরোপা জেতা কতটা গুরুত্বপূর্ণ

সবার মতোই শিরোপা জেতাটা পাকিস্তানের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ। কাল এমন একটা দলের বিপক্ষে খেলব, যারা বিশ্বকাপের শিরোপা জেতার ক্ষেত্রে মানদণ্ডটা অন্য পর্যায়ে নিয়ে গেছে। তবে তাদের ক্যাবিনেটে এ শিরোপাটা নেই, ফলে এ ম্যাচে অনেক কিছুই জড়িত। জাতি হিসেবে পাকিস্তান ক্রিকেটকে যেভাবে ভালোবাসে, এর চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আর কিছু হতে পারে না তাদের জন্য। আমরা পারফর্ম করতে প্রস্তুত। শুধু সেমিফাইনাল নয়, ইনশা আল্লাহ, এরপর ফাইনালেও খেলব।

জাস্টিন ল্যাঙ্গারের মুখোমুখি হওয়া

অনুভূতিটা একটু অদ্ভুত। দুই দশক ধরে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের যোদ্ধা ছিলাম। ফলে শুধু খেলোয়াড়দের ভেতরের কথা নয়, তাদের সংস্কৃতিটাও জানি আমি। পরের ২৪ ঘণ্টায় কী ঘটবে, সেটা ভেবে আমি একটা মানসিক চ্যালেঞ্জ অনুভব করছি। তবে পাকিস্তানের এ দলটার অংশ হতে পেরে গর্বিত আমি। দুর্দান্ত সব তরুণ ক্রিকেটার, অসাধারণ অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। দলটা পারফর্ম করছে। জাস্টিন ল্যাঙ্গার ও আমার অবস্থান একদিক থেকে একই। কারণ, প্রধান কোচ বা ব্যাটিং কোচ কোনো দলকে ম্যাচ জেতাবে না। আমরা শুধু সহায়ক। গত কয়েক মাস এ ভূমিকাটা উপভোগ করেছি। সেমিফাইনালের চ্যালেঞ্জ এ দলটা কীভাবে নেয়, সেটা দেখার অপেক্ষা করছি এখন।

আত্মবিশ্বাস কেমন পাকিস্তানের

এ দলের সামর্থ্য আছে যে কারও বিপক্ষে লড়াই করার, সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে সেটা দেখিয়েছে। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে যে অবর্ণনীয় চাপ ছিল, সেটা তারা যেভাবে সামলেছে, যে আত্মবিশ্বাস দেখিয়েছে, সেটা দারুণ। আমি খুবই আশাবাদী, দারুণ সম্ভাবনা দেখি। পাকিস্তান ক্রিকেট নিয়ে আমার সাবেক সতীর্থ ডিন জোনস বলত, ‘এরা আমার ছেলে। এদের নিয়ে আমার অনুভূতি তীব্র।’ যদি আমি তার মতো কিছু করতে পারি, পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য, সেটা আমার জন্য দারুণ সম্মানের হবে।

ফখরের ফর্ম নিয়ে দুশ্চিন্তা

ফখর (জামান) খুবই চমকপ্রদ এক চরিত্র। যতই সময় কাটাই তার সঙ্গে, ততই উপভোগ করি। নৌবাহিনীতে সাত বছর কাটানোর অর্থ, আপনি লড়াই করতে পারবেন। টি-টোয়েন্টিতে আপনাকে অন্তত ‘দ্বিমাত্রিক’ ক্রিকেটার হতে হবে। সে দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার, যে প্রতি ম্যাচে ৫-১০ রান বাঁচায়। যদি কাল তাকে বিশেষ কিছু করতে দেখেন, তাহলে অবাক হবেন না। বিশেষ করে অ্যাডাম জাম্পার ওপর চড়াও হয়ে সে পাকিস্তানকে শক্ত একটা অবস্থানে নিতে পারে।

বাবর ও আফ্রিদির ফর্ম

বাবর (আজম) খুবই ধারাবাহিক, সুস্থির। খুব বেশি দেখনদারি নেই তার। বিরাট কোহলির পুরো উল্টো চরিত্র। ব্যাটসম্যান হিসেবে মেধাবী, বল খেলার সময় তার যে প্রতিক্রিয়া, সেটা আমার দেখা ভালো কারও চেয়ে কম নয়। আর উচ্চ গতি শাহিনের (শাহ আফ্রিদি) একটা বড় অস্ত্র। সুইংয়ের দেখা পেলে সে ধ্বংসাত্মক হয়ে উঠতে পারে, লোকেশ রাহুলকে আউট করা তার বলটা আমার দেখা অন্যতম সেরা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন