default-image

ব্রিসবেনে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় মার্সিয়া আর ওয়েলিংটনে ইংলিশদের বিপক্ষে যে ঝড় উঠল তার নাম নিঃসন্দেহে ব্রেন্ডন ম্যাককালাম! কিউই অধিনায়ক উইকেটে থাকবেন অথচ ঝড় উঠবে না—তা কী করে হয়! কি সাদা, কি রঙিন (নাকি কালো?)—সব পোশাকেই ম্যাককালাম উইকেটে থাকা মানেই বোলারদের ঘাম ছুটে যাওয়া! আজ ওয়েলিংটনে ইংলিশ বোলারদের রীতিমতো নাকের পানি-চোখের পানি এক করলেন ম্যাককালাম। 
ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের কাছে যেখানে উইকেটের চরিত্র হয়ে উঠল কঠিন, দুর্বোধ্য; ম্যাককালামের কাছে তা যেন জলবৎ-তরলং! ১২৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই খুনে চেহারায় আবির্ভাব হলেন ৩৩ বছর বয়সী এ ডানহাতি। একের পর এক চার-ছক্কায় সীমানা পার করলেন ইংলিশ বোলারদের। করলেন বিশ্বকাপের সবচেয়ে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড। ফিফটি ছুঁতে ম্যাককালামের লাগল মাত্র ১৮ বল। আগের রেকর্ডটিও ছিল তাঁর, ২০০৭ বিশ্বকাপে কানাডার বিপক্ষে ফিফটি করেছিলেন ২০ বলে।
ওয়ানডে ক্রিকেটে ম্যাককালামের রেকর্ডটি তৃতীয়। অবশ্য এ তালিকায় তাঁর সঙ্গে রয়েছেন আরও তিনজন। ১৬ বলে ফিফটি করে সবার ওপরে এবি ডি ভিলিয়ার্স, ১৭ বলে হাফ সেঞ্চুরি করে দ্বিতীয় অবস্থানে সনাৎ জয়সুরিয়া।
অনেকে হয়তো বলবেন, নিউজিল্যান্ডের ছোট মাঠে চার-ছক্কার বন্যা বইয়ে দেওয়া বেশ সহজই। কিন্তু এই ম্যাককালামই তো তাঁর খুনে-কাণ্ডের জন্য কেবল নিউজিল্যান্ডের মাঠগুলোকেই বেছে নেন না—২০০৮ সালে আইপিএলে তাঁর সেই ইনিংসটি কি ভুলে গেলেন? আসলে ম্যাককালাম এমনই—উন্মত্ত, উদ্ধত একই সঙ্গে শৈল্পিকও!

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন