কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে লুইস ম্যাকম্যানাসের সেই বিতর্কিত স্টাম্পিং
কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে লুইস ম্যাকম্যানাসের সেই বিতর্কিত স্টাম্পিংটুইটার

ইচ্ছা করে করেছেন, না নিজের অজান্তে—সেটা এখন শুধু  লুইস ম্যাকম্যানাসই বলতে পারবেন। তবে যে কাজটা করেছেন, সেটা অন্যায়। শুধু ক্রিকেটের আইনেই অন্যায় নয়, ভদ্রলোকের খেলায় এটা একেবারে অখেলোয়াড়সুলভ আচরণ।  এ নিয়ে বিতর্ক করারও কোনো সুযোগ নেই।

default-image


তা লুইস ম্যাকম্যানাস কে, আর তিনি কী করেছেন, সেটা আগে জেনে নেওয়া যাক বরং। লুইস ম্যাকম্যানাসের বয়স ২৬। পেশায় ইনল্যান্ডের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার,  খেলেন হ্যাম্পশায়ারে। ভূমিকা উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের। তবে ব্যাটসম্যান হিসেবে নয়, যে ঘটনায় তিই সমালোচনার মুখে পড়েছেন, সেটা করেছেন উইকেটের পেছনে গ্লাভস হাতে।

বিজ্ঞাপন


কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে লেস্টারশায়ার ও হ্যাম্পশায়ারের মধ্যে ম্যাচ চলছিল। ৮ এপ্রিল শুরু ম্যাচে আগে ব্যাট করে প্রথম ইনিংসে ৫ উকেটে ৬১২ তোলে হ্যাম্পশায়ার। জবাবে  প্রথম ইনিংসে ২০২ রানে অলআউট হয়ে গিয়ে ফলোঅনে পড়ে লেস্টারশায়ার। ঘটনাটা লেস্টারের দ্বিতীয় ইনিংসে। ওদের ওপেনিং ব্যাটসম্যান হাসান আজাদ তখন ১৮ রানে ব্যাট করছিলেন। ইনিংসের ২৫তম ওভারে হ্যাম্পশায়ার স্পিনার লিয়াম ডসনের একটি বল আজাদের ব্যাটের পাশ দিয়ে চলে যায় উইকেটরক্ষক ম্যাকম্যানাসের গ্লাভসে। ব্যাটসম্যানের পা একটু বাইরে বেরিয়ে গেছে দেখে সঙ্গে সঙ্গেই বেল ফেলে দেন ম্যাকম্যানাস।  হ্যাম্পশায়ারের আবেদনের পর লেগ আম্পায়ার আউটও দিয়ে দেন আজাদকে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে ম্যাকম্যানাস বল ধরেছিলেন বাঁ হাতে এবং সেটা ওই হাতে রেখেই বেল ফেলে দেন ডান হাতে!

ক্রিকেটের আইনের ২৯.১.১.৫ ধারায় পরিষ্কার উল্লেখ আছে, ফিল্ডার হাত দিয়ে বেল তখনই ফেলতে পারবেন, যদি তাঁর ওই হাতে বল থাকে। নইলে সেটা আউটের জন্য গ্রহণযোগ্য হবে না।
ম্যাকম্যানাস নিজের এই ভুলের কথা আম্পায়ারকে জানাননি, উল্টো ব্যাটসম্যান আজাদকে সাজঘরে ফিরতে দেখে সতীর্থদের সঙ্গে উল্লাস করেছেন। ভিডিও দেখার পর তাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁকে ‘প্রতারক’ বলে ডাকা শুরু করেছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা।
ব্যাপারটা এখানেই শেষ হচ্ছে না। লেস্টারশায়ারের কোচ পল নিক্সন ম্যাচ শেষে বলেছেন, ‘আমরা এরই মধ্যে এ ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছি ম্যাচ রেফারির কাছে। আমাদের বিশ্বাস, খেলাটার সম্মান ও মর্যাদা অক্ষুণ্ণ রাখতে এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
লেস্টারশায়ারের প্রধান নির্বাহী পুরো ঘটনার সুষ্টু বিচার চেয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন।

default-image


আজ শেষ হওয়া ম্যাচটা ইনিংস ও ১০৫ রানে জিতেছে হ্যাম্পশায়ার। তবে ম্যাচ শেষে সংবাদমাধ্যমে কথা বলতে গিয়ে হ্যাম্পশায়ার অধিনায়ক জেমস ভিনস পাশে দাঁড়িয়েছেন তাঁর উইকেটরক্ষকের, ‘লুইস আসলে বুঝতে পারেনি কী হয়েছে। কয়েক ওভার যাওয়ার আগ পর্যন্ত আমরাও ব্যাপারটা জানতে পারিনি। আমরা আসলে কয়েক মুহূর্তের কথা বলছি, এরই মধ্যে ঘটে গেছে ঘটনাটা। লুইস যদি তখনই বুঝতে পারত সে কী ভুল করেছে, সে ব্যাটসম্যান আজাদকে ফেরত আনত।’
এখন অবশ্য মনে হচ্ছে, এই ভুলের জন্য কিছুটা হলেও শাস্তি পেতেই হবে লুইস ম্যাকম্যানাসকে।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন