এখনই চোখে নিউজিল্যান্ড সফর

মোস্তাফিজুর রহমান
মোস্তাফিজুর রহমান

বিদায়ের সুর বেজে উঠেছে বিপিএলে। লিগ পর্বের খেলা শেষ। কাল ও পরশু হবে এলিমিনেটর ও কোয়ালিফায়ার মিলিয়ে আরও তিনটি ম্যাচ। তারপর অপেক্ষা ৯ ডিসেম্বরের ফাইনালের। বিপিএল শেষের দিকে এগোচ্ছে, আর সামনে চলে আসছে নিউজিল্যান্ড সফর। বাড়ছে এ নিয়ে ব্যস্ততাও।
তবে এই ব্যস্ততা আপাতত মাঠের বাইরে। সিরিজ নিয়ে আজ বেলা ১১টায় মিনহাজুল আবেদীনের নেতৃত্বে নির্বাচক কমিটির সঙ্গে সভায় বসবেন ক্রিকেট পরিচালনা প্রধান আকরাম খান। অস্ট্রেলিয়া থেকে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনায় যোগ দেবেন জাতীয় দলের কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। উপস্থিত থাকার কথা টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদেরও। মাহমুদ অবশ্য ব্যক্তিগত কারণে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন না। সফরে আপত্কালীন ম্যানেজারের দায়িত্বে থাকবেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা ব্যবস্থাপক সাব্বির খান।
নিউজিল্যান্ডে সিরিজ খেলতে যাওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়ায় নয় দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্পে বিগ ব্যাশের দুটি দলের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলার কথা আছে বাংলাদেশ দলের। ইংল্যান্ড সিরিজের পর থেকে ছুটিতে থাকা হাথুরুসিংহে সিডনিতেই দলের সঙ্গী হবেন। সিডনির উদ্দেশে ৮ ও ১০ ডিসেম্বর দুই ভাগে ঢাকা ছাড়বেন ক্রিকেটাররা। সিডনি থেকে নিউজিল্যান্ডের ফ্লাইট ১৯ ডিসেম্বর। নিউজিল্যান্ড সফরের প্রাথমিক দল ঘোষণা হয়েছে আগেই। ২০ জনের দলের সঙ্গে বিসিবির ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের আওতায় অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার কথা নাজমুল হোসেন ও ইবাদত হোসেনের। স্ট্যান্ডবাই আছেন আরও নয় ক্রিকেটার।
কোচ-নির্বাচকদের আজকের সভার পর অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড সফরের বহরে দু-একটি মুখ বদলে যেতে পারে। খেলোয়াড়দের চোট-আঘাতের কারণে সেই সম্ভাবনাটা বেড়েছে। বিপিএলে হাঁটুর চোটে পড়ে মাঠের বাইরে চলে গেছেন মোহাম্মদ শহীদ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের আগে তাঁর দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা নেই। অস্ত্রোপচার লাগলে তো ছয় মাসের আগে ফেরাই হবে না। ইবাদতের সাইড স্ট্রেইনও পুরোপুরি সারেনি। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য তাই অন্য কারও কথা ভাবতেই হচ্ছে। বিবেচনায় আছেন অভিজ্ঞ পেসার রুবেল হোসেন ও কামরুল ইসলাম।
প্রাথমিক দলে থাকা লেগ স্পিনার তানভীর হায়দারও ডান হাতের মধ্যমায় চোট পান বিপিএলেই। ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে কাল মাঠে ফিরলেও নির্বাচকেরা এখনো তাঁর ফিটনেসের ব্যাপারে নিশ্চিত নন। আজ সভায় বসার আগে তানভীরসহ সব খেলোয়াড়ের ফিটনেসের সর্বশেষ অবস্থা তাঁরা জেনে নেবেন বিসিবির ফিজিও-চিকিৎসকদের কাছ থেকে। এ ছাড়া বিপিএলে মাঠের বাইরের কিছু ঘটনারও প্রভাব পড়তে পারে দলে। শৃঙ্খলাভঙ্গের অপরাধে দু-একজন শাস্তি পেয়েছেন। এমন অভিযোগ আছে আরও দু-একজনের বিরুদ্ধে, যা প্রচারের আলোয় আসেনি। সভায় তাঁদের নিয়েও আলোচনা হওয়ার কথা।
প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন এসব নিয়ে কালই খোলাসা করে কিছু বলতে রাজি হননি, ‘শহীদকে আমরা টেস্টের আগে পাচ্ছি না, এটা মোটামুটি নিশ্চিত। ইবাদতও পুরোপুরি সুস্থ নয়। মিটিংয়ে আমরা এসব নিয়ে আলোচনা করব। নতুন কাউকে নিতে হলে সেটা মিটিংয়েই ঠিক হবে। তবে স্ট্যান্ডবাইসহ এর আগে আমরা যে খেলোয়াড় তালিকা দিয়েছি, বিকল্প হিসেবে তার বাইরে কাউকে নেওয়ার সম্ভাবনা নেই।’
কাঁধের চোট না সারায় আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড সিরিজে খেলা হয়নি মোস্তাফিজুর রহমানের। নিউজিল্যান্ড সিরিজেই তাঁকে পাওয়ার আশা বাংলাদেশের। কিন্তু সিরিজের শুরু থেকেই মোস্তাফিজকে পাওয়া যাবে কি না, সে ব্যাপারে নিশ্চিত নন জাতীয় দলের ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়ান, ‘অনুশীলনে এখন সে মোটামুটি পূর্ণ গতিতেই বল করছে। আশা করছি, সফরের আগেই পুরো ফিটনেস চলে আসবে। তবে কাটার, স্লোয়ারের মতো স্পেশাল ডেলিভারিগুলো এখনো শুরু করেনি। সেগুলো শুরু করার আগে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছি না।’ বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিস চৌধুরী মনে করে, মোস্তাফিজ ও ইবাদত এখন সামর্থ্যের ৮০-৯০ ভাগ দিয়ে বল করতে পারছেন। এটা তাঁর কাছে আশাবাদী হওয়ার মতোই ব্যাপার।