ডি ভিলিয়ার্স-ঝড় দিয়ে শুরু আইপিএলের।
ডি ভিলিয়ার্স-ঝড় দিয়ে শুরু আইপিএলের।ছবি: আইপিএল

‘সিলেবাসের বাইরের প্রশ্নে’ আগেই একবার কুপোকাত হয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। যুজবেন্দ্র চাহাল, কাইল জেমিসন, মোহাম্মদ সিরাজদের নিয়ে সব ভাবনা বরাদ্দ রেখে দলটি আটকা পড়েছে হার্শাল প্যাটেলে। ৩০ বছর বয়সী এই পেসার ক্যারিয়ারে কখনো ৪ উইকেটও পাননি। সেই পেসার আজ আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে ২৭ রানে ৫ উইকেট তুলে নিলেন!
 
হার্শালের কারণেই শেষ ওভারে হঠাৎ ধসে পড়া মুম্বাই ইন্ডিয়ানস ১৫৯ রানের বেশি তুলতে পারেনি। তাড়া করতে নেমে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু তাই আরেকটু চমক দিতে চাইল। দেবদূত পাড়িকালের অনুপস্থিতিতে ঢুকে পড়েছিলেন রজত পাতিদার। অভিষিক্ত এই ব্যাটসম্যানই ওপেন করবেন বলে মনে হয়েছিল। কিন্তু নামলেন অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার ওয়াশিংটন সুন্দর। আরেক চমক!
 
মুম্বাইকে অবশ্য শেষ পর্যন্ত ওসব চমক দিয়ে হারাতে পারেনি বেঙ্গালুরু। তাদের হারাতে ‘সিলেবাসে’ থাকা ব্যাটসম্যানদেরই সাহায্য পেতে হয়েছে দলটিকে। টি-টোয়েন্টিতে এবি ডি ভিলিয়ার্স যে মার্কার দিয়ে দাগিয়ে রাখার মতো এক নাম। ভিলিয়ার্সের এক ইনিংসেই ইনিংসের শেষ বলে মুম্বাইকে ২ উইকেটে হারিয়েছে বেঙ্গালুরু।

বিজ্ঞাপন
default-image

আইপিএলে সবচেয়ে সফল দল মুম্বাই। কিন্তু নিজেদের প্রথম ম্যাচে বহুদিন ধরেই জয় পায় না দলটি। সে অনুযায়ী আজকের ম্যাচের ফল অনুমেয়ই। তবে এটা আজ বদলে যাবেই বলে মনে হয়েছিল। শুরুতেই রানআউটের দুর্ভাগ্য রোহিত শর্মাকে কেড়ে নিয়েছে। তবু ১১ ওভারেই মাত্র এক উইকেট হারিয়ে এক শ ছুঁই ছুঁই স্কোর পেয়ে যায় দলটি। ক্রিস লিন ও সূর্যকুমার যাদব ১১ রানের মধ্যে ফিরে গেলে একটা ধাক্কা খায় দলটি। ইশান কিষান ও হার্দিক পান্ডিয়া তবু শেষের ঝড়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। কিন্তু হার্শাল প্যাটেলের এক স্পেলে ধরাশায়ী হয়ে যায় মুম্বাই।

১৬০ রানের লক্ষ্যে বেঙ্গালুরুর পক্ষে নেমেছিলেন কোহলি ও সুন্দর। ব্যাটিংয়ে সুন্দরকে আগে নামানোটা ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটের অনুসারীদের চমকে দেয়নি। আইপিএল ও ভারত দলে স্পিনার হিসেবে জায়গা পেলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে ব্যাটসম্যান হিসেবে ভালোই নামডাক আছে সুন্দরের। আজ তাঁকে আগে নামানোর সিদ্ধান্তটা কাজে আসেনি। যতক্ষণ ছিলেন, খুব একটা স্বচ্ছন্দ মনে হয়নি। ১০ রান করে আউট হওয়ার আগে ১৬ বল খেলেছেন।

default-image

অন্য প্রান্তে বিরাট কোহলি দারুণ শুরু করেছিলেন। সুন্দর ও পাতিদারের আউটের পরও খেলছিলেন দারুণ। চারে নামা গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে আগ্রাসী হতে দেখে একটু গুটিয়ে গিয়েছিলেন। কে জানে সেটাই কাল হলো কি না। দলকে এক শ পার করানোর ঠিক আগমুহূর্তেই আউট ২৯ বলে ৩৩ রান তোলা কোহলি। এই অবস্থায় কোথায় চাপটা সয়ে নেবেন ম্যাক্সওয়েল, ৫ রান পরেই বিদায় ম্যাক্সওয়েল (২৮ বলে ৩৯)।

১৫তম ওভারের প্রথম বলে ম্যাক্সওয়েলের বিদায়ের পরও বেঙ্গালুরুর আশা বেঁচে ছিল। ৩৫ বলে ৫৭ রান দরকার। উইকেটে এবি ডি ভিলিয়ার্সের মতো একজন ব্যাটসম্যান আছেন না। একটু পর ড্যান ক্রিস্টিয়ানের বিদায়ও তাই শঙ্কা জাগায়নি। সঙ্গীদের এক পাশে দর্শক বানিয়ে একাই ম্যাচ জিতিয়ে ফেললেন। ২৭ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় ৪৮ রান করা ডি ভিলিয়ার্স অবশ্য ম্যাচ শেষ করে আসতে পারেননি। ২ বল আগে ২ রান বাকি থাকতে রানআউট হয়েছেন। হার্শাল ও সিরাজ বাকি দুই বলে ঠিকই ২ রান এনে দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন