করোনার এই সময়টাতে অন্যান্য ব্যবসার মতো ক্ষতির শিকার হয়েছে এয়ারলাইনস ব্যবসাও। তবে ধীরে ধীরে চালু হচ্ছে আকাশপথে যোগাযোগ। করোনার ধাক্কা সামলে চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারতের বিমান যোগাযোগও। মহামারিতে বিমান চলাচল অব্যাহত রাখতে তৈরি করা হচ্ছে ‘এয়ার বাবল’ ব্যবস্থা। বাংলাদেশ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এই এয়ার বাবল ব্যবস্থায় যাচ্ছেন ভারতে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ঢাকায় অবস্থিত ভারতীয় হাইকমিশন।

default-image

আইসিসির নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সাকিব এখন মাঠে ফেরার অপেক্ষায়। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ খেলতে কাল ফিটনেস পরীক্ষা দিয়েছেন। আজ নিলামে তাঁর দল নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার কথা। মাঠে ফেরার আগে সাকিব অংশ নিচ্ছেন বিভিন্ন প্রচারেও। সেটির অংশ হিসেবে বাঁহাতি অলরাউন্ডার যাচ্ছেন ভারতে। বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশে অবস্থিত ভারতীয় হাইকমিশন বুধবার টুইট করেছে, ‘বাংলাদেশের শীর্ষ ক্রিকেটার সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে পেয়ে আজ ভারতীয় হাইকমিশন আনন্দিত। তিনি ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশেই ভীষণ জনপ্রিয়। তিনি এয়ার বাবল ব্যবস্থাপনা যাচ্ছেন ভারতে।’

বিজ্ঞাপন

গত মাসে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দুই দেশের মধ্যে ফের বিমান চালুর ঘোষণা দিয়েছিল। সে ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশের তিন এয়ারলাইনস—বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস ও নভো এয়ারের সপ্তাহে ২৮টি ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করার কথা ছিল। কিন্তু অনিবার্য কারণে আজ বৃহস্পতিবার থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ঢাকা-কলকাতা রুটে বিমান চলাচল স্থগিত করেছে।

এদিকে এয়ার ইন্ডিয়া, ভিসতারা, ইন্ডিগো, স্পাইসিজেট ও গোএয়ার—ভারতের পাঁচ এয়ারলাইনসেরও সপ্তাহে সমানসংখ্যক ফ্লাইট পরিচালনা করার কথা।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের আগে সাকিব আল হাসানের দ্রুতই নেমে যাওয়ার কথা অনুশীলনে। তবে এরই ফাঁকে হয়তো তিনি ঘুরে আসবেন প্রতিবেশী দেশ ভারতে।

মন্তব্য পড়ুন 0