default-image

ওয়ার্নারকে নিয়ে আবার আলোচনার ঝড় উঠেছে, কেমন করবেন তিনি এবারের অ্যাশেজে! শঙ্কাবাদীরা সামনে নিয়ে এসেছেন ২০১৯ সালের অ্যাশেজে তাঁর পারফরম্যান্সের বিষয়। ইংল্যান্ডে সেবারের অ্যাশেজে মাত্র ৯.৫ গড়ে ৯৫ রান করেছেন ওয়ার্নার। সাতবারই আউট হয়েছিলেন ফাস্ট বোলার স্টুয়ার্ট ব্রডের বলে।

কিন্তু ২০১৯ সালের এ পরিসংখ্যান দেখে এবারের অ্যাশেজে ওয়ার্নারকে মাপতে গেলে বড় ভুলই হবে বলে মনে করেন ইংল্যান্ডের ফাস্ট বোলার জেমস অ্যান্ডারসন। ওয়ার্নারকে নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘ডেভিড ওয়ার্নারের বিপক্ষে আমরা অনেক খেলেছি। আমরা জানি, কখনোই বলা যাবে না যে তার ওপর চেপে বসতে পেরেছি। সে অসাধারণ এক ব্যাটসম্যান, মানের দিক থেকেও সে অনেক ভালো।’

default-image

৮৬ টেস্টে প্রায় ৫০ গড়ে রান করেছেন ওয়ার্নার। টেস্ট ক্রিকেটে ওয়ার্নারের মোট রান ৭৩১১। এর মধ্যে ঘরের মাঠে খেলা ৪৫ টেস্টে ১৮টি শতকসহ ৬৩.২০ গড়ে করেছেন ৪৫৫১ রান। টেস্টে তাঁর সর্বোচ্চ ৩৩৫ রানের ইনিংসটিও ঘরের মাঠেই। অ্যান্ডারসন সবাইকে মনে করিয়ে দিয়েছেন এসবই, ‘অস্ট্রেলিয়াতে তাঁর রেকর্ড অসাধারণ। তাই আমরা জানি, ২০১৯–এর গ্রীষ্মে আমরা যে ওয়ার্নারের মুখোমুখি হয়েছি, এবার আর তেমন হবে না। এবার অন্য এক ওয়ার্নারেরই মুখোমুখি হতে হবে আমাদের।’

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক গ্রেগ চ্যাপেলের কথাও একই রকম। ওয়ার্নারকে কখনোই হেলাফেলা করা উচিত হবে না। টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দিয়ে ওয়ার্নারের ছন্দ ফিরে পাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, ‘টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই অনেকে তাকে বাতিলের খাতায় ফেলে দিয়েছিল। কিন্তু সে প্রমাণ করেছে টপ অর্ডারে তার গুরুত্ব কতটা। আমি মনে করি, টেস্টের ব্যাটিং লাইনআপে তার গুরুত্ব আরও বেশি।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন