default-image
>করোনায় গুরুতর অসুস্থ রোগীদের বাঁচাতে সুস্থ হওয়াদের প্লাজমা দান করতে আহ্বান জানিয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার

করোনায় কাঁপছে ভারত। প্রতিদিন দেশটিতে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন শত শত মানুষ। ভারতে করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন মহারাষ্ট্রের মানুষ। শুধু এই রাজ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা দুই লাখ ছাড়িয়েছে। এই অবস্থায় আবারও সরব হলেন রাজ্যটির সবচেয়ে বিখ্যাত সন্তান শচীন টেন্ডুলকার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রান ও সেঞ্চুরির মালিক করোনা থেকে সেরে ওঠা মানুষজনকে প্লাজমা দান করার আহ্বান জানিয়েছেন। আজ মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালের প্লাজমা থেরাপি ইউনিট উদ্বোধন করতে গিয়ে এই অনুরোধ করেছেন টেন্ডুলকার।

মুম্বাইয়ের আন্ধেরি এলাকায় সেভেন হিল হাসপাতালে বৃহনমুম্বাই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের উদ্যোগে বানানো হয়েছে এই প্লাজমা থেরাপি ইউনিট। উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রথম সুযোগেই করোনার বিরুদ্ধে লড়া সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের শ্রদ্ধা জানালেন ১০০ আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরির মালিক, 'কোভিড-১৯ মহামারি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অবিশ্বাস্য চ্যালেঞ্জ হিসেবে এসেছে। আর সময়ের ডাকে সাড়া দিয়ে আক্রান্তদের সেবায় আমাদের চিকিৎসক, নার্স, প্যারামেডিকস কর্মী, পুলিশ, মিউনিসিপ্যাল ও সরকারি কর্মচারিরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।'

প্লাজমা থেরাপি ইউনিট বানানোর জন্য বৃহনমুম্বাই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনঅকে ধন্যবাদ জানান মুম্বাইয়ের ছেলে টেন্ডুলকার, ‘বিশ্বজুড়ে গবেষকেরা কার্যকর ভ্যাকঅসিন ও চিকিৎসা বের করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। গুরুতর অসুস্থদের জন্য প্লাজমা থেরাপিটা একটা উপায় হয়ে এসেছে। মানুষের জীবন বাঁচাতে বৃহনমুম্বাই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই।’

এরপর করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠাদের প্লাজমা দিতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান ভারতের সাবেক অধিনায়ক, ‘কোভিড থেকে যারা পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাঁদেরকে আমি প্লাজমা থেরাপির জন্য রক্ত দিতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। আপনারা গুরুতর অসুস্থদের সুস্থ করতে সাহায্য করতে পারেন।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0