বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ম্যাক্সওয়েলের কথা শুনে হেসে দিলেন হারপার, যিনি তখন ধারাভাষ্যকারদের সঙ্গে কথা বলছিলেন। পিচে থাকা ফক্স স্পোর্টসের মাইক্রোফোনের কল্যাণে ম্যাক্সওয়েলের সেই কথা শুনে ফেলল গোটা বিশ্ব। পরে জানা গেল, ম্যাক্সওয়েল আসলেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

মেলবোর্ন স্টারস পরে সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছে। জানিয়েছে, ম্যাক্সওয়েলের অমনটা বলা ঠিক হয়নি। ঠাট্টাচ্ছলে ওভাবে করোনাকে হেয় করা উচিত হয়নি বিশ্বকাপজয়ী এই অলরাউন্ডারের।

করোনায় আক্রান্ত হওয়া অবস্থাতেই রেনেগেডসের বিপক্ষে ম্যাক্সওয়েল খেলতে নেমেছিলেন কি না, সে নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। যদিও ম্যাক্সওয়েলের দল স্টারস সে দাবি নাকচ করে দিয়েছে।

default-image

স্টারস জানিয়েছে, ম্যাচের পরেই র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের মাধ্যমে ম্যাক্সওয়েলের করোনা ধরা পড়ে। খবর পাওয়ার পরপরই ম্যাক্সওয়েল আইসোলেশনে চলে গেছেন।

ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে মেলবোর্ন স্টারসের ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন, যে তালিকায় আছেন পেসার বিলি স্ট্যানলেক, অ্যাডাম জাম্পা, মার্কাস স্টয়নিস, নাথান কোল্টার-নাইল, জো বার্নস, হারিস রউফ, জো ক্লার্ক, বিউ ওয়েবস্টারের মতো ক্রিকেটাররা।

করোনার কারণে দুর্বল দল নিয়েই খেলতে নামছে স্টারস। যে কারণে গত দুই ম্যাচে পার্থ স্কর্চার্স আর রেনেগেডসের বিপক্ষে বাজেভাবে হেরেছে তারা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন