পাকিস্তান সমর্থকদের চোখে খলনায়ক হয়ে গেছেন ডি কক।
পাকিস্তান সমর্থকদের চোখে খলনায়ক হয়ে গেছেন ডি কক।ছবি: এএফপি

দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানের দ্বিতীয় ওয়ানডে জমজমাট এক প্যাকেজ উপহার দিয়েছে কাল। চার-ছক্কার মিছিলে এক দল ৩৪১ রান তুলেছে। অন্য দল সেটা তাড়া করে থেমেছে ৩২৪ রানে। এর মধ্যে এক ব্যাটসম্যান একাই করেছেন ১৯৩ রান। ফখর জামান আবার হয়েছেন রানআউট। যে রানআউট নিয়েও হচ্ছে বিতর্ক। ব্যাটিং প্রান্তের দিকে ছুটছিলেন, এমন অবস্থায় উইকেটকিপার কুইন্টন ডি কক বোলিং প্রান্তে থ্রো করতে বলেছিলেন ফিল্ডারকে। তাতে বিভ্রান্ত হয়ে পেছন ফিরে সময় নষ্ট করে রানআউট হয়েছেন ফখর।

এমন আউট নিয়ে পাকিস্তানের ক্রিকেটপ্রেমীরা তাই অভিযোগ তুলেছেন। ক্রিকেটের চেতনাবিরোধী ঘটনা ঘটিয়েছেন ডি কক—এমন অভিযোগ তাঁদের। পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার এ নিয়ে সবার মত জানতে চেয়ে টুইট করেছেন।

ওদিকে ক্রিকেটের আইনের ৪১.৫.১ ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো ফিল্ডার ইচ্ছা করে নিজের কথা, কাজ ও আচরণের দ্বারা ব্যাটসম্যানের সঙ্গে চাতুরি করলে তাতে আইনের লঙ্ঘন ঘটবে।’ ৪১.৫.১৬ ও ৪১.৫.৭ ধারা অনুযায়ী এতে ৫ রান জরিমানা করতে বলা হয়েছে এবং আবার বল করার নিয়ম আছে। পাকিস্তানের সমর্থকেরা কুইন্টন ডি কককে ‘প্রতারক’ বলছেন।

পাঠক, আপনার কী ধারণা? গতকাল ডি ককের ঘটনায় আপনার মতামত জানান।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন