আরব আমিরাতে কেক কেটে বাবা-মা হওয়ার আনন্দ উদযাপন করেছেন কোহলি-আনুশকা।
আরব আমিরাতে কেক কেটে বাবা-মা হওয়ার আনন্দ উদযাপন করেছেন কোহলি-আনুশকা। ছবি: টুইটার

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গত ২৭ আগস্ট সুখবরটা দিয়েছেন তাঁরা। বাবা-মা হওয়ার সুখবর। চোখ জুড়ানো একটি ছবি পোস্ট করেন বিরাট কোহলি ও আনুশকা শর্মা দম্পতি। ক্যাপশন লেখেন, ‘এখন থেকে আমরা তিনজন।’ তারপর থেকে গুঞ্জন ওঠাই স্বাভাবিক। এই তাঁদের এই ‘তৃতীয়’ সত্তা ছেলে না মেয়ে?

কোহলি-আনুশকা দম্পতি এখন দুবাইয়ে। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে আরব আমিরাতে শুরু হবে আইপিএল। এ টুর্নামেন্টে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে নেতৃত্ব দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন কোহলি। টানা ছয় দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার পর বাবা-মা হওয়ার আনন্দ দলের সতীর্থদের সঙ্গে কেক কেটে উদ্‌যাপন করেন ভারতের অধিনায়ক।

default-image
বিজ্ঞাপন

এদিকে ভারতে কোহলির সমর্থকেরা তো বসে নেই। ভীষণ জনপ্রিয় এ জুটির ঘরে ছেলে না মেয়ে আসছে তা নিয়ে চলছে আলোচনা। সমর্থকদের জন্য এই কাজটা সহজ করার চেষ্টা করলেন বেঙ্গালুরুর খ্যাতনামা জ্যোতিষী পণ্ডিত জগন্নাথ। আগামী বছরের জানুয়ারিতে বাবা হওয়ার সম্ভাব্য সময় বলে মনে করছেন কোহলি। পণ্ডিত জগন্নাথ তার আগেই বলার চেষ্টা করলেন, কে আসছে তাঁদের ঘরে।

‘এশিয়ানেট নিউজেবল’কে পণ্ডিত জগন্নাথ বলেন, ‘ছেলে বা মেয়ে—দুজনেই সৃষ্টিকর্তার উপহার এবং সামর্থ্যও সমান। তবে নানা ক্ষেত্রে মেয়েরা কিন্তু ছেলেদের পেছনে ফেলছে। বিরাট-আনুশকার মুখ পড়ে এবং জ্যোতিষশাস্ত্র সংক্রান্ত গণনার পর বলতে পারি তারা সম্ভবত মেয়ে সন্তানের আশীর্বাদপুষ্ট হবে।’

এর আগে বাবা-মা হওয়ার খবর জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একই ছবি পোস্ট করেন কোহলি ও আনুশকা। দুজনের সাদা-কালো পোশাকে তোলা এ ছবির প্রধান আকর্ষণ ক্যাপশন। নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক ও টুইটারে পোস্ট করা ছবিটির ক্যাপশনে ভারতীয় অধিনায়ক লেখেন, ‘এখন থেকে আমরা তিনজন। আসবে জানুয়ারি ২০২১।’ তিন বছর হলো বিয়ে হয়েছে কোহলি-আনুশকার। এর আগে দুজন চুটিয়ে প্রেম করেছেন। কয়েক মাস গুঞ্জন চলার পর ২০১৭ সালে ডিসেম্বরে বিয়েটা সের নেন তাঁরা। বন্ধু ও পরিবারের লোকজনদের নিয়ে ইতালির মিলানে বিয়ে করেছিলেন দুজন। এই দম্পতি প্রথমবারের মতো বাবা-মা হওয়ার স্বাদ পেতে যাচ্ছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের মতে, প্রায় চার মাস হলো অন্তঃসত্ত্বা আনুশকা।

বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে কোহলির একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। সেখানে বাবা হওয়ার অনুভূতি ভাগ করে নেন বেঙ্গালুরু অধিনায়ক, ‘এটা অবিশ্বাস্য অনুভূতি। কেমন লাগছে তা বলা কঠিন। তবে জানার পর আনন্দে আটখানা হয়েছি। খবরটা জানানোর পর চারপাশ থেকে যেভাবে অভিনন্দন ও ভালোবাসা উপচে পড়েছে তা অবিশ্বাস্য। লোকে সত্যিই আমাদের নিয়ে আনন্দিত। আমরা তৃতীয় সদস্যের অপেক্ষায় আছি।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন