কোহলি–আনুশকাকে নিয়ে গাভাস্কারের এমন মন্তব্য !

‘ক্যাচ মিস তো ম্যাচ মিস’—ক্রিকেটের আপ্তবাক্য। বিরাট কোহলি কাল লোকেশ রাহুলের দুটি ক্যাচ ছেড়ে ম্যাচটাও হাতছাড়া করেছেন। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কাছে এই হারে নিজের দায়ও স্বীকার করেছেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু অধিনায়ক। কিন্তু ঘটনা এখানেই থেমে নেই। কাল আইপিএলের এ ম্যাচ চলাকালীন ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কারের একটি মন্তব্যে বিতর্কের ঢেউ উঠেছে ভারতীয় ক্রিকেটে। কোহলি-আনুশকা দম্পতিকে নিয়ে কথাটা বলেছেন ভারতীয় কিংবদন্তি।

কোহলি বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার হলেও কাল বেঙ্গালুরুকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে পারেননি। ক্যাচ ছাড়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতেও ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। এতে বরাবরের মতোই উঠে আসে আনুশকা শর্মার প্রসঙ্গ। মাঠে কোহলির দিন খারাপ গেলে তাঁর স্ত্রী ও বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা প্রসঙ্গ তুলে সমালোচনা করা হয়। বর্তমানে নিজেদের সংসারে নতুন প্রাণের অপেক্ষায় আছেন এ দম্পতি। কিছুদিন আগে কোহলি-আনুশকা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ ঘোষণা দেন। তবে গাভাস্কার ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় যে মন্তব্য করেছেন তা কোহলি-আনুশকা কারওরই ভালো লাগার কথা না।

বিজ্ঞাপন

আনুশকার জন্য এসব অবশ্য নতুন কিছু নয়। কোহলি মাঠে খারাপ করলেই তাঁকে পেঁচিয়ে ঠাট্টা-মশকরায় মেতে ওঠেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। তবে সুনীল গাভাস্কারের মতো ক্রিকেট-ব্যক্তিত্বের কাছ থেকে এমন মন্তব্য অবাক করবে অনেককেই। কোহলি কাল রান তাড়া করতে নেমে ৫ বলে ১ রানে আউট হওয়ার পর তাঁকে সমালোচনার শূলে চড়ান গাভাস্কার, ‘লকডাউনের সময় সে শুধু আনুশকার বোলিং সামলেছে।’

default-image

করোনাভাইরাসে ভারতজুড়ে লকডাউন চলাকালীন নিজেদের মজার সব ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়েছেন কোহলি-আনুশকা জুটি। সম্ভবত সেদিকে ইঙ্গিত করেই এমন মন্তব্য করেন ভারতের সাবেক এ ওপেনার। তবে গাভাস্কারের শব্দচয়ন মোটেও পছন্দ হয়নি ক্রিকেটপ্রেমীদের। আইপিএলে ধারাভাষ্যকারদের তালিকা থেকে গাভাস্কারকে ছেঁটে ফেলার দাবি তুলেছেন অনেকেই।

কোহলির সঙ্গে এখন আরব আমিরাতে আছেন আনুশকা। সেখান থেকেই গাভাস্কারকে ধুয়ে দিয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী। ইনস্টাগ্রামে তিনি লিখেছেন, ‘জনাব গাভাস্কার, আপনার বার্তাটা অরুচিকর। কিন্তু আমি আপনার কাছে জানতে চাই স্বামীর খেলার জন্য তার স্ত্রীকে দোষারোপ করার মতো কাণ্ডজ্ঞানহীন মন্তব্য করার কথা ভাবলেন কীভাবে? বছরের পর বছর ধরে খেলায় ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় আপনি ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত জীবনকে সম্মান করে এসেছেন। আমার ক্ষেত্রেও আপনার একই সম্মানবোধ থাকা উচিত নয় কি। আমি নিশ্চিত কাল রাতে আমার স্বামীর পারফরম্যান্স নিয়ে আপনি অন্য আরও অনেক কথা বলতে পারতেন। নাকি শুধু আমার নামটা ব্যবহার করলেই আপনার কথাগুলো প্রাসঙ্গিক হয়ে ওঠে?’

ম্যাচে কোহলির নেতৃত্ব কৌশলেরও সমালোচনা করেন গাভাস্কার, ‘শেষ ৪ ওভারে বিরাটের কৌশলের সমালোচনা করতেই হবে। শেষ ৪ ওভারে ৭৪ রান উঠেছে। বোলারদের দেখেও বিস্ময়ের কিছু নেই। ভেবেছিলাম শেষ ৪ ওভারে ৫০ রানের মতো হবে। কিন্তু ৭৪ রান অনেক বেশি।’ পাঞ্জাব আগে ব্যাট করে ৩ উইকেটে ২০৬ রান তুলেছিল। তাড়া করতে নেমে ১০৯ রানে অলআউট হয় বেঙ্গালুরু।

মন্তব্য পড়ুন 0