ভারত জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পনসর অনলাইন শিক্ষাভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘বাইজুস’
ভারত জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পনসর অনলাইন শিক্ষাভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘বাইজুস’ছবি: টুইটার

খবরটা বেশি দিন আগের নয়। ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পনসর হিসেবে নাম লিখিয়েছিল অনলাইন শিক্ষাভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘বাইজুস’।

যে কারণে ভারতের যেকোনো খেলার ফাঁকে শাহরুখ খানের মতো বলিউড তারকাকে দেখা যায় বাইজুসের গুণগান গাইতে।

এবার জানা গেল, শুধু ভারতীয় দলই নয়, বাইজুসের নজর আরও ওপরের দিকে। এবার সরাসরি আইসিসিরই বৈশ্বিক অংশীদার হয়েছে তারা। ইংরেজিতে ‘গ্লোবাল পার্টনার’ যাকে বলে আরকি।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে, আইসিসির সঙ্গে বাইজুসের চুক্তিটা ১২০ থেকে ১৩০ কোটি রুপির মধ্যে। চুক্তিটা হয়েছে তিন বছরের জন্য। আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো এ খবর না এলেও ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াই জানিয়েছে খবরটা।

এমন একটা সময় আইসিসির সঙ্গে বাইজুস গাঁটছড়া বাঁধল, যখন আইসিসির দুটো বড় ইভেন্ট আয়োজন করবে ভারত—২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ।

আগামী তিন বছর আইসিসির সব ইভেন্টের ভেন্যু, সম্প্রচার স্বত্ব, ডিজিটাল স্বত্ব—সবকিছুই থাকবে বাইজুসের কাছে।

অনলাইনভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলো যে আস্তে আস্তে ক্রিকেটের দিকে আগ্রহী হয়ে উঠছে, এটারই সর্বশেষ উদাহরণ যেন আইসিসির সঙ্গে বাইজুসের এই মোটা চুক্তি।

এর আগে বিভিন্ন ক্রিকেটীয় ইভেন্টের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে পেটিএম, ফোনপে, ক্রেড, উন্যাকাডেমির মতো অনলাইনভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোও নাম লিখিয়েছিল।

তারা হয়তো বুঝেছে, উপমহাদেশে জনপ্রিয়তা অর্জন করার জন্য ক্রিকেটের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট না হয়ে কোনো উপায় নেই, বিশেষ করে ভারতে তো বটেই!

প্রতিবছর আইসিসিকে বাইজুস কত টাকা দেবে? নাম প্রকাশ না করার শর্তে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘এই টাকা তিন বছরে সমান ভাগে দেওয়া হবে না। বেশির ভাগ টাকা বাইজুস চুক্তির প্রথম বছরেই দিয়ে দেবে। বাকি টাকাগুলো দেওয়া হবে ২০২৩ সালে, যখন ভারত ওয়ানডে বিশ্বকাপ আয়োজন করবে।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন