বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ভারত সকালের সেশনে ৩৩ রানের মধ্যে দুই ওপেনারকে হারায়। চারে নামা কোহলি এখান থেকে দলের প্রথম ইনিংসের সুর বেঁধে দেওয়ার চেষ্টা করেন।

অন্যদিকে কাগিসো রাবাদা তাঁকে থামাতে কল্পিত ‘ফোর্থ স্টাম্প’-এ বল করে গেছেন। কখন ভুল করে খোঁচা মেরে বসেন! হ্যাঁ, অফ স্টাম্পের একটু বাইরের বলে চিরায়ত দুর্বলতার বশে কোহলি শেষ পর্যন্ত খোঁচা মেরেই আউট হয়েছেন আর বোলারও ছিলেন রাবাদা; ততক্ষণে ভারতের সংগ্রহ দুই শ পার।

default-image

দলীয় ২১১ রানে কোহলি আউট হওয়ার পর ১২ রান যোগ করতে পেরেছে ভারত। ২২৩ রানে প্রথম ইনিংসে ভারত অলআউট হওয়ার পর অতিথি দলটিকে হাসিমুখে মাঠ ছাড়ার সুযোগ করে দেন যশপ্রীত বুমরা।

এই পেসার শেষ বিকেলে তুলে নেন প্রোটিয়া ওপেনার ডিন এলগারকে (৩)। ১ উইকেটে ১৭ রান নিয়ে প্রথম দিনের খেলা শেষ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ভারতের সংগ্রহ অল্প মনে হলেও কন্ডিশন কঠিন হওয়ায় ব্যাট করাটা সহজ হয়নি কারও জন্যই।

কোহলি ঠিক এ জায়গাতেই ব্যতিক্রম। স্ট্রোকের ফুলঝুড়ি না ছোটালেও জমাট রক্ষণ দেখে মনে হয়েছে, রাবাদার আগুনে তোপ সামলানো কত সহজ! রানের খাতা খুলেছেন ১৬তম বলে, অর্ধশতক তুলে নেন ১৫৮ বলে।

default-image

শতক না পেলেও রাবাদার সঙ্গে তাঁর ধ্রুপদি লড়াই দর্শকেরা মনে রাখবেন অনেক দিন। দলীয় সংগ্রহের ৩৪ শতাংশ রানই এসেছে কোহলির ব্যাট থেকে। ভারতের আর কেউ ১০০ বলও খেলতে পারেননি। ৭৭ বলে ৪৩ রান করেন চেতেশ্বর পুজারা। ৫০ বলে ২৭ এসেছে ঋষভ পন্তের ব্যাট থেকে। তৃতীয় উইকেটে পুজারাকে নিয়ে ১৫৩ বলে ৬২ রানের জুটি গড়েন কোহলি। পন্তের সঙ্গে ১১৩ বলে গড়েন ৫১ রানের জুটি।

চার স্পেলে ২২ ওভার বল করা রাবাদা নেন ৪ উইকেট। এর মধ্যে ডুয়ান অলিভিয়েরের সঙ্গে প্রথম স্পেলে জুটি বেঁধে আগুন ঝরান রাবাদা। তাঁর প্রতি চার বল পর ‘ফলস শট’ খেলেছেন ভারতের ব্যাটসম্যানরা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন