default-image

কোহলির এই ‘ফেরা’ কেবল নিছক এক আউট হয়ে ফেরাই ছিল না; কাল শূন্য রানে আউট হয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত এক নজির গড়েছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান। কোহলি অদ্ভুত এক ‘শতকে’র মালিক হয়েছেন, যেটি তাঁর মতো ব্যাটসম্যানের জন্য অস্বস্তিকরই। সব ধরনের সংস্করণ মিলিয়ে এর আগে ১০০ ম্যাচ আগে শেষবার ব্যাট হাতে শতকের দেখা পেয়েছেন কোহলি। এরপর কেবলই খরা। এর মধ্যে আছে ২১ ওয়ানডে, ১৭ টেস্ট, আইপিএলের ৩৭ ম্যাচ ও ২৫টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। তাঁর শেষ শতকটির সঙ্গে বাংলাদেশের নাম জড়িয়ে আছে। ২০১৯ সালের নভেম্বরে কলকাতায় বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্টে শেষবার শতরান করেন কোহলি। এবারের আইপিএলে তিনি শুরু থেকেই ছন্দহীন। ৭ ম্যাচে করেছেন মাত্র ১১৯ রান; গড় ১৯.৮৩। সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৪৮।

default-image

কোহলির এ অবস্থা দেখে তাঁর সাবেক গুরু রবি শাস্ত্রীর ভালো লাগছে না। ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক কোচ মনে করেন, খেলতে খেলতে অতিরিক্ত ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন কোহলি, ‘আমার মনে হয়, এ মুহূর্তে যদি কারও সবচেয়ে বেশি ছুটির প্রয়োজন হয়, সেটি কোহলিরই। ওর আরও অনেক ক্রিকেট পড়ে আছে সামনে। মানসিক অবসাদে সে যদি সেটি হারিয়ে ফেলে, তা মোটেও ভালো হবে না। আমি মনে করি, ওর এ মুহূর্তে বিশ্রামের প্রয়োজন।’

বিশ্রামে গেলেই কি আগের কোহলিকে ফিরে পাওয়া সম্ভব? শাস্ত্রী মনে করেন, সম্ভব। তিনি মনে করেন, কোহলির একটা ভালো ইনিংস খেলা খুবই প্রয়োজন, সেটি হলেই আগের অবস্থায় ফেরত আসতে পারবেন। তবে সবার আগে কোহলির নিজের ক্লান্তি দূর করাটা বেশি জরুরি, ‘কোহলির কেবল একটা ভালো ইনিংস দরকার ফিরে আসতে। সেটি সময়ের ব্যাপার। সবচেয়ে আগে ওর প্রয়োজন দারুণ একটা বিশ্রাম।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন