রিভিউতে এলবিডব্লুর আউট নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে জোর আলোচনা উঠেছে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে বিষয়টি নিয়ে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলিও প্রশ্ন তোলার পর আলোচনার পালে আরও বেশি বাতাস লাগে। কোহলি রিভিউতে ‘আম্পায়ার্স কল’ আর এলবিডব্লুর আউটের নিয়ম পরিবর্তনের দাবি তোলেন। কিন্তু আইসিসির ক্রিকেট কমিটির প্রধান অনিল কুম্বলে ছিলেন পরিবর্তনের বিপক্ষে। শেষ পর্যন্ত রিভিউতে এলবিডব্লুর আউটের ক্ষেত্রে কিছুটা পরিবর্তন এনেছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি।

ফিল্ডারদের এলবিডব্লুর আবেদনে আম্পায়ার সাড়া দেননি, এমন ক্ষেত্রে যদি ফিল্ডিং দলের অধিনায়ক রিভিউ নেন, তাহলে সেই সিদ্ধান্ত ঠিক রাখা বা না রাখার ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম এনেছে কমিটি। আগের নিয়মে মাঠের আম্পায়ার আউট না দিলে দেখা হতো বলের অর্ধেক লেগ অথবা অফ স্টাম্প কিংবা বেলসে আঘাত করেছে কি না। যদি বলের অর্ধেক অফ বা লেগ স্টাম্পের পাশে বা বেলসের নিচের দিকে না থাকত, তাহলে মাঠের আম্পায়ারের ‘নট আউট’ সিদ্ধান্তই বহাল থাকত।

বিজ্ঞাপন
default-image

নতুন নিয়মে উইকেট অঞ্চল থেকে বেলসের উচ্চতা একটু বাড়ানো হয়েছে। আগে বল বেলসের কোথায় আঘাত করবে, সেটি ধরা হতো বেলসের নিচের দিকটা। এখন এ উচ্চতা বাড়িয়ে বেলসের ওপরের দিক করা হয়েছে। তাই এখন আম্পায়ার আউট দেননি এমন বলের ক্ষেত্রে রিভিউতে বল বেলসের ওপরের দিকে লাগলেই মাঠের আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত ঘুরে যাবে। বল অফ বা লেগ স্টাম্পের বাইরের দিকে আঘাত করার ক্ষেত্রেও কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। নতুন নিয়মে বলের কিছু অংশ স্টাম্পে লাগলেই আম্পায়ারের ‘নট আউট’ সিদ্ধান্ত রিভিউতে পাল্টে যাবে। ভারতের অধিনায়ক মূলত সেটাই চেয়েছিলেন।

নতুন নিয়মে আরও দুটি পরিবর্তন এনেছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি। এলবিডব্লুর রিভিউ নেওয়ার আগে ফিল্ডিং দল মাঠের আম্পায়ারের কাছ থেকে জেনে নিতে পারবেন যে ব্যাটসম্যান শট খেলেছিলেন কি না। এ ছাড়া ব্যাটসম্যান ঠিকমতো রান সম্পন্ন করেছেন কি না, বোলার পরের বল করার আগে সেটিও পরীক্ষা করে নেবেন তৃতীয় আম্পায়ার।

করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে ম্যাচ আয়োজনের ক্ষেত্রে কিছু নতুন নিয়ম চালু করেছে আইসিসি। ঘরের দলের আম্পায়ার দিয়ে ম্যাচ পরিচালনা করা আর কোভিড–১৯ বদলি এর মধ্যে দুটি প্রধান নিয়ম। এই দুটিসহ করোনার সময়ে আনা পরিবর্তনগুলো আপাতত বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন