আইপিএলে কাল চেন্নাই সুপার কিংসের অফ স্পিনার মঈন আলীর বলে বোল্ড হন কোহলি। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর এই ওপেনার তার আগে ৩৩ বলে করেছেন ৩০ রান। এবার আইপিএলে তাঁর ব্যাটে এমনিতেই রান নেই। ১১১.০৯ স্ট্রাইক রেটে অর্ধশতক পেয়েছেন মাত্র একটি।

এই মৌসুমে অন্তত ১৫০ রান করা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে কোহলির স্ট্রাইক রেট তৃতীয় সর্বনিম্ন। ইষান কিষান (১১১.৩৮) এবং কেইন উইলিয়ামসনের স্ট্রাইক রেট (৯৯.৪৮) তার চেয়েও কম।

default-image

কোহলিকে ড্রাইভে প্রলুব্ধ করে বোল্ড করেন মঈন আলী। গত বছর চেন্নাই টেস্টেও একইভাবে তাঁকে বোল্ড আউট করেন ইংলিশ অলরাউন্ডার। কাল ৩০ রানের ইনিংসে ১৬টি ‘ডট’ বল খেলেন কোহলি। তিনি আউট হওয়ার আগের ওভারে রান আউট হন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

কোহলির সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে ড্রেসিংরুমে ফিরতে হয় তাঁকে। রজত পতিদার (১৫ বলে ২১) ও মহিপাল লোমরোর (২৭ বলে ৪২) ঝড় না তুললে ১৭৩ রানের সংগ্রহ পেত না বেঙ্গালুরু।

ক্রিকইনফোর বিশ্লেষণী অনুষ্ঠানে বিশপ বলেছেন, ‘১০-১৫ রান করা পর্যন্ত সে বলে বলে রান নিতে পারেনি। তেমন ইচ্ছাও দেখিনি তার মধ্যে। এক্সট্রা-কাভার দিয়ে ছক্কা মেরেছে সিমারকে। তখন বলের চেয়ে তার রানসংখ্যা বেশি হওয়ার পর আবারও পিছিয়ে পড়েছে। শুধু এই মৌসুমে না, গত মৌসুমেও বিরাটের খেলার মধ্যে এই ধরনটা দেখা গেছে। এমনকি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও সে উড়ন্ত সূচনার পর মন্থর হয়েছে। আমি এটা নিয়ে চিন্তিত।’

default-image

গত ফেব্রুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে রোস্টন চেজের অফ স্পিনে আউট হওয়ার উদাহরণ টানেন ক্যারিবিয়ান বিশপ, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে রোস্টন চেজ তাকে আউট করেছে। টেস্ট ম্যাচেও তাকে অফ স্পিনারদের বিপক্ষে আউট হতে দেখেছি। তাই এসব নিয়ে চিন্তিত...আমিও কোহলিভক্ত। কোহলি সেরা ফর্মে থাকলে ক্রিকেটটা দেখি। তাই এটা সমালোচনা নয়, পর্যবেক্ষণ। আমি চিন্তিত যে বিভিন্ন ধরনের বোলার তাকে আউট করছে এবং সে স্ট্রাইক রেট বাড়াতে পারছে না।’

বিশপ কোহলিকে নিয়ে চিন্তিত হলেও নিউজিল্যান্ড ও বেঙ্গালুরুর সাবেক অধিনায়ক মঈন আলীর প্রশংসা করেছেন।

টেস্ট ম্যাচের মতো ফাঁদ পেতে কোহলিকে আউট করেছেন মঈন, এমনটাই মনে করেন সাবেক এই বাঁহাতি স্পিনার, ‘রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও হরভজন সিংয়ের মতো পাওয়ারপ্লেতে সে জোরে বল করেনি শুধু সিঙ্গেলস দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে। এটা আলাদা। মঈন আলী স্টাম্পের বাইরে থেকে বল বাঁক খাওয়ানোর চেষ্টা করেছে, টেস্টে এমন আউট দেখা যায়। মঈন আলীর বোলিংয়ের ধরনের জন্যই তাকে প্রশংসা করতে হবে। দ্রুত বাঁক নেওয়ার মতো জায়গাতেই সে বল ফেলেছে। এমন বোলিং তাকে (কোহলি) এখন সমস্যায় ফেলছে। কোহলি শুধু সিঙ্গেলসের খোঁজে থাকায়ও এটা (আউট) ঘটার রাস্তা খুলে গেছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন