বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওয়াংখেড়ে এসে অবশেষে টসে হেরেছেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক উইলিয়ামসন, আগে ব্যাটিংয়ে নামে বেঙ্গালুরু। জগদীশ সুচিতের প্রথম বলটা লেগ স্টাম্পের ওপর নিরীহই ছিল, সেটিই ঘুরিয়ে খেলতে গিয়ে শর্ট মিড উইকেটে উইলিয়ামসনের হাতে সহজ ক্যাচ দেন কোহলি। এ মৌসুমে কোহলি তৃতীয়বার প্রথম বলেই আউট হলেন কোনো রান না করেই! প্রতিদিনই যেন অবিশ্বাস বাড়ছে কোহলির ফর্ম ঘিরে, কোহলি যেন নিজেও বিশ্বাস করতে পারছিলেন না কী হলো!

প্রথম বলেই কোহলির আউট অবশ্য টের পেতে দেননি ফাফ ডু প্লেসি ও রজত পাতিদার। ডু প্লেসির সঙ্গে ব্যাটিং অর্ডারে ওপরে উঠে আসা পাতিদারের জুটিতেই ওঠে ৭৩ বলে ১০৭ রান। ৩৮ বলে ৪৮ রান করে জগদীশ সুচিতের দ্বিতীয় শিকার হয়ে অর্ধশতক হাতছাড়া করেন পাতিদার।

default-image

ডু প্লেসি অবশ্য অপরাজিত ছিলেন শেষ পর্যন্ত। ৫০ বলে ৭৩ রানের ইনিংসে বেঙ্গালুরু অধিনায়কের ব্যাট থেকে এসেছে ৮টি চার ও ২টি ছয়। বেঙ্গালুরু অবশ্য ১৯০ পেরোয় ম্যাক্সওয়েলের পর দিনেশ কার্তিকের ঝড়ে। ২৪ বলে ৩৩ রানের ইনিংস খেলেন ম্যাক্সওয়েল। তবে স্বপ্নময় ফর্মে থাকা কার্তিক ছাড়িয়ে গেছেন তাঁকেও। এবার ৮ বলে ৩০ রানের ইনিংস খেলেছেন এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান, ১টি চারের সঙ্গে মেরেছেন ৪টি ছয়। এ মৌসুমে ১২ ইনিংস খেলার পরও কার্তিকের স্ট্রাইক রেট এখন ২০০!

কার্তিকের ঝড় গেছে মূলত নিজের প্রথম আইপিএল ম্যাচ খেলতে নামা ফজলহক ফারুকির ওপর দিয়ে, তাঁর শেষ ৪ বলে উঠেছে ২২ রান। তবে সে ওভারের শুরুতেই কার্তিকের ক্যাচ হাতছাড়া করে ছয় বানিয়ে দেন রাহুল ত্রিপাঠি, অমন না হলে বেঙ্গালুরুকে আরেকটু কম রানে আটকাতে পারত হায়দরাবাদ।

default-image

রানতাড়ায় শুরুটা হয়তো এর চেয়ে বাজে হতে পারত না হায়দরাবাদের। নন-স্ট্রাইকে থাকা উইলিয়ামসন ইনিংসের প্রথম বলেই রানআউট হয়েছেন স্ট্রাইক প্রান্তে, শাহবাজ আহমেদের সরাসরি থ্রোয়ে। ১১ ম্যাচ শেষে উইলিয়ামসনের রান এখন ১৯৯, গড় ২০-এর কম, স্ট্রাইক রেট ১০০-এর নিচে।

হায়দরাবাদের দুর্দশা আরও বাড়ে ম্যাক্সওয়েলের করা প্রথম ওভারেই, পঞ্চম বলে গিয়ে বোল্ড হন অভিষেক শর্মা। তিনে নামা ত্রিপাঠি ও এইডেন মার্করামের ৪৯ রানের জুটি একটু সামাল দিয়েছিল সে চাপ। অবশ্য মার্করাম ২১ রান করতেই খেলে ফেলেন ২৭ বল। ত্রিপাঠি শেষ পর্যন্ত ৫৮ রান করেন ৩৭ বলে, তবে হায়দরাবাদের ধস শুরু হয়ে যায় তাঁর উইকেটের আগেই। ১০৪ রানে ৪ উইকেট থেকে ১২৫ রানেই গুটিয়ে যায় তারা। সাত নম্বরে বোলিংয়ে এসে ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন হাসারাঙ্গা, এ লেগ স্পিনারের এটি ক্যারিয়ারসেরা বোলিং।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন