বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

কয়েক দিন আগেই রবি শাস্ত্রী ইঙ্গিত দিয়েছেন, আবার ধারাভাষ্যে দেখা যেতে পারে তাঁকে। ধারাভাষ্য না হলেও ক্রিকেট বিশ্লেষকের ভূমিকায় যে অন্তত ফিরছেন শাস্ত্রী, সেটা নিশ্চিত। তবে বহুদিন ভারত দলের কোচের দায়িত্ব পালন করা শাস্ত্রীকে আপাতত তাঁর সাম্প্রতিক অতীত নিয়েই কথা বলতে হচ্ছে। কথা বলতে হচ্ছে তাঁর শেষ দিকে হওয়া বিতর্ক নিয়ে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে শাস্ত্রী বলেছেন, ‘এ বিতর্ক সবার প্রকাশ্যে আসতে দেওয়াটাই ভুল হয়েছে বোর্ডের, আমি এ পদ্ধতির অংশ ছিলাম বহু বছর। আমি সাত বছর ধরে এ দলের অংশ ছিলাম। প্রকাশ্যে আসতে না দিয়ে ভালো যোগাযোগব্যবস্থা দিয়ে এটা অনেক ভালোভাবে সামাল দেওয়া যেত।’

default-image

কোহলি না গাঙ্গুলী—কে মিথ্যা বলছেন, এ বিতর্কেই যেতে চান না শাস্ত্রী। তাঁর দাবি, বিষয়টা এমন নয় যে কে মিথ্যা বলছে, বরং সত্যটা কী, সেটা জানাই জরুরি, ‘বিরাট নিজের দিকটার কথা বলছে। এখন সভাপতির উচিত তাঁর দিকটা জানানো। অথবা কী হয়েছিল, তার একটা ব্যাখ্যা দেওয়া। এটুকুই। কে মিথ্যা বলছে, সেটা মূল বিষয় না। প্রশ্ন হলো, সত্যটা কী? আপনি সত্য জানতে চান, আর সেটা বের হবে যোগাযোগ ও কথোপকথনের মধ্য দিয়ে। অন্য কোনোভাবে নয়। একজন এক পাশে বসে কথা বলবে, অন্যজনও এর জবাব দেবে। এখানে স্বচ্ছতা থাকা উচিত এবং দুই পক্ষের কথাই শোনা উচিত, শুধু এক পক্ষের নয়।’

অধিনায়কত্ব থেকে সরে যাওয়া নিয়ে বিতর্ক হলেও বোর্ডের সিদ্ধান্তের সঙ্গে যে একমত, সেটাও জানিয়েছেন শাস্ত্রী, ‘সাদা বলে শুধু একজন অধিনায়ক থাকা উচিত। রোহিত শর্মা টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক, সে ক্ষেত্রে তারই সাদা বলের অধিনায়ক হওয়া উচিত।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন