মাঝখানে কোয়ারেন্টিনের সময়টা একা একা পার করাটা যে খুব কঠিন ছিল, সেটাও জানিয়েছেন হেরাথ, ‘কঠিন দুটি সপ্তাহ কাটিয়েছি আমি। তবে আবার দলের সঙ্গে যোগ দিতে পেরে আমি খুশি এবং সফরে (খেলা শুরুর) জন্য উন্মুখ হয়ে অপেক্ষা করছি।’

করোনা শনাক্ত হওয়ার পর কোয়ারেন্টিনে কঠিন সময় কাটলেও কর্তৃপক্ষ তাঁর সেবা–সুস্থতা ভালোই করেছেন। হেরাথ বলেছেন, ‘আমার অবশ্যই বিসিবি এবং নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগকে ধন্যবাদ জানাতে হবে। আমার যত্নটা তারা ভালোই করেছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন