খাবারের বস্তা কাঁধে টেনে গরিবদের পাশে আফ্রিদি

বিজ্ঞাপন
default-image

চারপাশে রুক্ষ পাথুরে প্রান্তর। অনেক দূরে দু-একটা জীর্ণ ঘর। দেখেই বোঝা যায়, আধুনিক সভ্যতার লেশমাত্র নেই, জীবন সেখানে নির্মম, বেঁচে থাকাটা লড়াই। এই প্রান্তরের লড়াকু মানুষদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন শহীদ আফ্রিদি। খাবারের বস্তা কাঁধে নিয়ে ছুটে গেলেন তাদের পাশে।

করোনাভাইরাস মহামারির শুরু থেকে নিজের ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে পাকিস্তানে গরিব-দুঃখী মানুষের সাহায্য করছেন আফ্রিদি। লকডাউনের ফলে খেটে খাওয়া মানুষদের রোজগার বন্ধ হওয়ায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন তারা। তাদের জন্য 'ফুড ড্রাইভ' চালু করেছেন পাকিস্তানের সাবেক এ অলরাউন্ডার।দেশের নানা এলাকায় গিয়ে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন তাদের ঘরে। দিচ্ছেন টাকা-পয়সাও।

পাকিস্তানের সংবাদকর্মী সাজ সাদিক টুইটারে কাল একটি ভিডিও পোস্ট করেন। বেলুচিস্তানের লাসবেলা জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিম্ন আয়ের মানুষদের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছেন আফ্রিদি। খাবারের বস্তা একাই টেনে তাদের মাঝে পৌঁছে ডাক দিতেই ছুটে আসে শিশুরা, বড়রা। ভিডিওতে এমনই দেখা যায়।

পাকিস্তানের সাবেক এ অলরাউন্ডারের ইউটিউব চ্যানেল আছে। সে চ্যানেলে বেলুচিস্তানে এই ত্রাণ কার্যক্রমের ভিডিও পোস্ট করেছেন তিনি। আফ্রিদির ভাষায়, 'পাকিস্তানে সবচেয়ে মানবেতর জীবনয-যাপন করা মানুষের বসবাস বেলুচিস্তানে। (করোনার) এই সময়ে তাদের সাহায্য বেশি প্রয়োজন।'

করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাব শুরুর পরই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আফ্রিদি। বন্ধুদের নিয়ে তহবিল গঠন করেন। এই তহবিল এখন কাজে লাগাচ্ছেন ত্রাণ কার্যক্রমে। শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশনের মাধ্যমেও সাহায্য চাইছেন বিত্তবানদের কাছে।

সাজ সাদিক টুইটারে আফ্রিদির ত্রাণ কার্যক্রমের ভিডিও-র ক্যাপশনে লিখেছেন, 'কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী বলেছিলেন “অন্যের সেবা করে এই পৃথিবীতে নিজের থাকার ভাড়া মেটাতে হয়।” মানবতার জন্য আফ্রিদির কাজের ভিডিও।'

আফ্রিদির ত্রাণ কার্যক্রমের ভিডিও লিংক

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন