ঘাস খেয়ে হলেও পাকিস্তান আর্মির শক্তি বাড়াবেন শোয়েব

বিজ্ঞাপন
default-image

শোয়েব আখতারের মতো ক্রিকেটাররা আছেন বলেই তো ক্রিকেট দুনিয়াটা এখনো পানসে হয়ে যায়নি। দুদিন পর পর নানা বিষয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন আর আলোচনার জন্ম দেন পাকিস্তানের সাবেক ফাস্ট বোলার। সব সময় যে ক্রিকেট নিয়েই পড়ে থাকেন তা-ও নয়। এবার পাকিস্তানের সামরিক শক্তি বাড়াতে পরামর্শ দিচ্ছেন শোয়েব।

কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনা আবারও বাড়ছে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আবারও এ নিয়ে আলোচনার চেষ্টা চালিয়েছে চীন। ওদিকে পাকিস্তান জম্মু, কাশ্মীর, লাদাখ ও গুজরাটের কিছু অংশ পাকিস্তানের বলে নতুন এক মানচিত্র প্রকাশ করেছে। এ অবস্থায় দেশের সামরিক শক্তি বাড়াতে চাইছেন শোয়েব, 'আল্লাহ যদি আমাকে ক্ষমতা দেন, তাহলে দরকার হলে ঘাস খেয়ে বেঁচে থাকব কিন্তু আর্মির জন্য বাজেট বাড়াব।' এআরওয়াই নিউজকে শোয়েব আরও বলেন, 'আমি আর্মির প্রধানকে বলব আমার সঙ্গে বসে কথা বলুন, তারপর সিদ্ধান্ত নিন। যদি বাজেট ২০ শতাংশ দেওয়া হয়, তাহলে আমি সেটা বাড়িয়ে ৬০ ভাগ করে দেব। একে অপরকে অপমান করলে, শুধু নিজেদেরই ক্ষতি।'

দেশের জন্য জীবন দিতেও নাকি প্রস্তুত ৪৪ বছর বয়সী শোয়েব। ১৯৯৯ সালে কারগিল যুদ্ধে অংশ নিতে নাকি কাউন্টিতে খেলার প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিয়েছিলেন, 'নটিংহামের সঙ্গে আমার ১ লাখ ৭৫ হাজার পাউন্ডের চুক্তি হয়েছিল। ২০০২ সালেও বড় এক চুক্তি হয়েছিল। কারগিলের সে ঘটনার পর দুটোই ফিরিয়ে দিয়েছি। আমি লাহোরের সীমানায় ছিলাম। এক জেনেরাল জিজ্ঞেস করেছিল, আমি সেখানে কী করছি। আমি বললাম, যুদ্ধ শুরু হতে যাচ্ছে এবং মরলে একসঙ্গেই মরব। আমি এভাবে কাউন্টি ক্রিকেটকে ফেলে এসেছি এবং ওরা বিস্মিত হয়েছিল। আমি তা নিয়ে ভাবতে চাইনি। আমি কাশ্মীরে থাকা বন্ধুদের ডাক দিয়ে বলেছি, আমি লড়াই করতে চাই।'

তখন ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে চাইলেও কদিন আগে পাকিস্তানে দশ হাজার ভেন্টিলেটর পাঠিয়ে সাহায্য করতে ভারতের কাছে অনুরোধ করেছিলেন শোয়েব!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন