ভারতের কাছে হার যদি হয় অসহায় আত্মসমর্পণ, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে পাকিস্তানের উড়ে যাওয়াটা লজ্জা!
বোলিং-সহায়ক কন্ডিশনে টসে জিতে ফিল্ডিং, শুরুতেই ২ উইকেট, অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হকের মুখে এক চিলতে হাসিও ফুটেছিল। ওইটুকুই, এরপর পুরো ম্যাচেই হতাশার মিছিল। চলেছে ক্যাচ ফেলার মহড়া, শেষ ওভারগুলোতে খেই হারিয়ে ফেলা বোলিং আর বাজে ব্যাটিংয়ের চূড়ান্ত প্রদর্শনী। মিসবাহ হতাশ সবকিছু নিয়েই, ‘ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং। আমরা সব বিভাগেই হেরেছি। শুরুতে বোলিং-সহায়ক কন্ডিশন ছিল, আমরা সুবিধাটা নিতে পারিনি।’ আগের ম্যাচগুলোয় শেষ ওভারগুলোয় আঁটসাঁট বোলিং করলেও এ ম্যাচে শেষ ১০ ওভারে ১১৫ রান গুনেছে পাকিস্তান। মিসবাহ এর মধ্যে দেখছেন আত্মবিশ্বাসের অভাব, ‘গত কয়েক ম্যাচে ছেলেরা ডেথ ওভারে ভালোই বোলিং করেছে। তবে আজ আমরা বেশিই রান দিয়েছি। আত্মবিশ্বাসের অভাবে এমন হয়।’
নিউজিল্যান্ডের সিমিং কন্ডিশনে ব্যাটসম্যানদের আরও সতর্ক হওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন পাকিস্তান অধিনায়ক, ‘নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে প্রথম ১০ ওভার বলে সিম থাকে। আমরা নতুন বল সামলাতে পারিনি। অবশ্য তারাও ভালো বল করেছে।’
পাকিস্তান এখন খাদের কিনারে। মিসবাহ জানেন এখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানো সহজ নয়, ‘এখন হয় বাঁচো, না হয় মরো, এমন অবস্থা। কোনো “যদি” “কিন্তু” নেই। এ রকম পারফরম্যান্স আপনাকে তাড়া করে বেড়াবে। হাতে কিছু সময় আছে। আমাদের মানসিকভাবে সবল হতে হবে। বিশ্বকাপ তো এমনই। আপনাকে উঠে দাঁড়াতে হবে, কৌশল নিয়ে ভাবতে হবে। আর খেলতে হবে গোটা দলকেই। দু-একটি পারফরম্যান্স আপনাকে ম্যাচ জেতাতে পারবে না।’ এএফপি, ক্রিকইনফো।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন